চুক্তি অনুযায়ী জঙ্গিদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

14 এশিয়ানবার্তা: প্রতিবেশী দেশ ভারতে আটক বাংলাদেশি জঙ্গিদের দ্রুতই দেশে ফিরিয়ে এনে আইনের আওতায় নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকা পলিটেকনিক্যাল ইন্সটিটিউট আয়োজিত নবীন বরণ ও বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘আমি ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বানে ভারতে গিয়েছিলাম। সেখানে সব ধরনের কথা হয়েছে। সর্বপ্রকার সহযোগিতা করার কথা জানিয়েছে তারা। জঙ্গিসহ যেসকল অপরাধী ভারতে আটক রয়েছে, চুক্তি অনুযায়ী তাদের ফেরত দেবে। অতীতে তারা এ ব্যাপারে সহায়তা করেছে এবং ভবিষ্যতেও করবে। আটক জঙ্গিদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।’

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের ২৪ ও ২৫ সেপ্টেম্বর খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলায় ছয় জেএমবি জঙ্গিকে উত্তর-পূর্ব ভারতের মিজোরাম রাজ্যের আইজল থেকে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশের বিশেষ টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ)। গ্রেফতার হওয়া জঙ্গিরা হলো- আনোয়ার হোসেন ফারুক ওরফে এনাম ওরফে জামাই ফারুক  ওরফে কালো ভাই, মাওলানা ইউসুফ ওরফে বক্কর ওরফে আবু খেতাব, জাহিদুল শেখ ওরফে জাফর ওরফে জবিরুল, মো. রফিকুল ওরফে মো. রুবেল ওরফে পিচ্চি, শহিদুল ইসলাম ওরফে শামীম ও আবুল কালাম ওরফে করিম। এদের মধ্যে রুবেল, জাহিদুল এবং আনোয়ার হোসেন ফারুক ওরফে জামাই ফারুক বাংলাদেশের নাগরিক বলে জানিয়েছে এসটিএফ। ২০১৪ সালের পর থেকে এরা পলাতক ছিল।

জামাই ফারুক বাংলাদেশের মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি। ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ময়মনসিংহের ত্রিশালে প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)-এর তিন জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ফারুককে গত ২৫ সেপ্টেম্বর উত্তর ২৪ পরগনা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার হওয়ার পর গত অক্টোবরে পুলিশ ও গোয়েন্দারা দুই দফায় কলকাতায় এসটিএফ এর হেফাজতে রেখে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এরপর থেকেই তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে দুই দেশের মধ্যে কথা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.