সরকারী দলের মদদে সাঁওতাল পল্লীতে হামলা ও গুলি: জয়নুল আবেদিন

10গাইবান্ধা থেকে আরিফ উদ্দিন: বিএনপি’র চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জয়নুল আবেদিন ফারুক বলেছেন, স্থানীয় সরকারীদলের মদদে প্রশাসন গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাঁওতালদের উপর হামলা চালিয়েছে। পুলিশের গুলিতে চারজন প্রাণ হারিয়েছেন, আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। এদের মধ্যে দ্বীনেশ টুডু এক চোখ হারিয়েছেন। তিনি এ হামলার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে দোষীদের বিচার দাবি করেছেন।

শুক্রবার সকালে দিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবেদিন ফারুকের নেতৃত্বে বিএনপি’র কয়েকজন প্রতিনিধি গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাপমারা ইউনিয়নের মাদারপুর ও জয়পুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত সাঁওতালদের খোঁজ-খবর নিতে আসেন। প্রতিনিধিরা প্রায় এক ঘণ্টা সাঁওতালদের বাড়ি-বাড়ি গিয়ে তাদের কাছ থেকে নির্যাতনের বর্ণনার কথা শোনেন। এরপর সকাল ১০টার দিকে মাদারপুর গির্জার সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন।
সমাবেশে বিএনপি’র রংপুর বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান হাবিব দুলু বলেন, আওয়ামীলীগ সরকারের শাসনামলে মানুষ নিরাপদ নয়। অন্যায়ের প্রতিবাদ হয় না। পুলিশ সাঁওতালদের হত্যা উদ্দেশে গুলি ছুড়ে।  আবার তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। তিনি আরো বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় আসলে এদের বিচার করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অমলেন্দু দাস অপু,  কেন্দ্রীয় সদস্য সুশীল বড়–য়া, প্রফেসর বিরুং ও অ্যাভোকেট মাইকেল। স্থানীয়দের মধ্যে ছিলেন, গাইবান্ধা  জেলা বিএনপির সভাপতি আনিসুজ্জামান খান বাবু, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান মন্ডল ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক কবির আহম্মদ প্রমুখ। এ সময় ক্ষতিগ্রস্ত সাঁওতাল পরিবারের মধ্যে শাড়ী ও লুঙ্গি বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.