পরিবর্তন হলো রাজশাহী আন্তর্জাতিক টেনিস কমপ্লেক্সের নাম


মঈন উদ্দীন: মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ
মুজিবুর রহমানের সুহৃদ অ্যাডভোকেট আব্দুস সালামের নামে রাজশাহীর
আন্তর্জাতিক টেনিস কমপ্লেক্সের নামকরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার
দুপুরে কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
টেনিস কমপ্লেক্সের সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হুদা দুলু স্বাক্ষরিত এক
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৯৮১ সালে শিক্ষানগরী রাজশাহীতে
‘বোয়ালিয়া টেনিস ক্লাব’ প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৮২ সালে এই ক্লাবের
নামকরণ করা হয় ‘রাজশাহী টেনিস কমপ্লেক্স’। ২০০৪ সালে এই ক্লাবের
নামকরণ করা হয় ‘জাফর ইমাম টেনিস কমপ্লেক্স’। মুক্তিযুদ্ধবিরোধী
কার্যকালাপে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ এনে টেনিস কমপ্লেক্স থেকে তার
নাম অপসারণ করার দাবি জানান রাজশাহীর মুক্তিযোদ্ধারা। এ বছরের ১৯
ফেব্রুয়ারি লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়। এই অভিযোগের সুষ্ঠু
তদন্তের জন্য জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি
কমিটি গঠিত হয়।
জেলা প্রশাসক রাজশাহী কর্তৃক জুন মাসের ২৮ তারিখ স্বাক্ষরিত তদন্ত
প্রতিবেদনের রিপোর্ট ও সারসংক্ষেপ গত ৩০ জুন টেনিস কমপ্লেক্সে
প্রেরণ করা হয়। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে কিছুটা বিলম্ব হলেও
টেনিস কমপ্লেক্সের প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিভাগীয় কমিশনারের পরামর্শে
কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কার্যনির্বাহী
কমিটি জ্ঞাত ও নিশ্চিত হয়ে কমপ্লেক্স হতে জাফর ইমামের নাম অপসারণের
বিষয়ে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

বন্যায় সবজি ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত॥
কাঁচা মরিচের কেজি ২২০
মঈন উদ্দীন: জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে রাজশাহীর বাজারে কাঁচা মরিচ
বিক্রি হয়েছে ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে। এক মাসের ব্যবধানে প্রতি
কেজিতে দাম বেড়েছে ১৬০-১৭০ টাকা। রাজশাহী নগরীর বাজারে কাঁচা
মরিচ বিক্রি হয়েছে ২২০ টাকা থেকে ২৪০ টাকা কেজি। শুধু কাঁচা
মরিচই নয় প্রায় সব সবজির দামই এখন চড়া। বিক্রেতারা বলছেন, বন্যা

আর বৃষ্টিতে সবজির জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে। এরই প্রভাব পড়ছে
বাজারে। রাজশাহী নগরীর বাজারগুলো ঘুরে দেখা গেছে, কাঁচা সবজির
দাম বেড়ে হয়েছে দ্বিগুণ থেকে তিনগুণ পর্যন্ত। দাম বেড়েছে আলু,
বেগুন, করলা, শশা, পটলসহ সকল সবজির। বন্যায় মরিচ ও অন্যান্য সবজির
ক্ষতির কারণে পর্যাপ্ত আমদানি না থাকায় এমন দাম বেড়েছে বলে জানান
সবজি বিক্রেতারা।
সাহেব বাজারের সবজি ব্যবসায়ী কামাল হোসেন জানান, টানা
বর্ষণের কারণে নিচু এলাকার সবজি ক্ষেতগুলোর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। দুই
সপ্তাহ আগে কাঁচা মরিচের যে দাম ছিল বর্তমানে সেই মরিচ প্রায়
তিনগুণ দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। টানা বর্ষণ ও বন্যা পরিস্থিতির কারণে
আগামী দেড়-দুই মাস সবজির দাম বাড়তি থাকবে বলেও জানান এই
বিক্রেতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.