1. [email protected] : AK Nannu : AK Nannu
  2. [email protected] : arifulweb :
  3. [email protected] : F Shahjahan : F Shahjahan
  4. [email protected] : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  5. [email protected] : Arif Prodhan : Arif Prodhan
  6. [email protected] : Farjana Sraboni : Farjana Sraboni
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন

চিহ্নিত সন্ত্রাসী দলে প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে নজর রাখতে হবে : খালিদ মাহমুদ চৌধুরী(রাজশাহীর আরও 11টি খবর)

  • Update Time : বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭
  • ২৩ Time View


মঈন উদ্দীন ,রাজশাহী ব্যূরো: আওয়ামী লীগে কোনো হাইব্রিড নেতার স্থান হবে না উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহের সময় যেনো কোনো চিহ্নিত সন্ত্রাসী দলে প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে নজর রাখতে হবে। জামায়াতের কোনো নেতাকর্মীকে আওয়ামী লীগে স্থান দেয়া হবে না। তিনি বলেন মনে রাখতে হবে আওয়ামী লীগের সদস্য হওয়া মানে স্বাধীনতার পক্ষে দেশের জন্য কাজ করা। আওয়ামী লীগের সদস্য হওয়া মানে সরকারের সকল উন্নয়নের দাবিদার।
বুধবার দুপুরে রাজশাহীর বাগমারায় আওয়ামী লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মোবাইল কনফারেন্সের মাধ্য এসব কথা বলেন। তিনি বর্তমান সরকারের চলমান উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে পুনরায় আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতায় আনার জন্য নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি থাকার কথা ছিল খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর। তবে তিনি মোবাইল কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য প্রদান করেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী-৪ বাগমারা আসনের সংসদ সদস্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, জেলা সহসভাপতি আব্দুল মজিদ, সহসভাপতি অনীল কুমার সরকার, এ্যাড. ইব্রাহিম হোসেন, জেলা মহিলা লীগ সভাপতি এ্যাড. মর্জিনা পারভিন, ভবানীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও পৌর আ’লীগের সভাপতি আব্দুল মালেক মন্ডল প্রমুখ।

আদিবাসীদের উন্নয়নে আলাদা মন্ত্রনালয় দাবি

রাজশাহী ব্যূরো: সমতলের আদিবাসী ও দলিতদের উন্নয়নে আলাদা মন্ত্রনালয়ে দাবি জানিয়েছেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। বুধবার রাজশাহীতে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এ দাবি তোলেন তিনি। নেটওয়ার্ক অন নন মেইনস্ট্রিম মারজিনালাইজড কমিউনিটিস (এনএনএমসি) দুপুরে নগরীর একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয় এ আয়োজন করে। ওই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাসের নেতা ফজলে হোসেন বাদশা। দীর্ঘদিন ধরেই আদিবাসীদের উন্নয়নে আলাদা মন্ত্রনালয় দাবি জানিয়ে আসছে আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাস।
পাহাড় ও সমতলের আদিবাসীদের মধ্যে উন্নয়ন বৈষম্য রয়েছে বলে উল্লেখ করেন বাদশা। তিনি বলেন, পাহাড়ের আদিবাসীরা কিছুটা রাষ্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে। এর মূল কারণ পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আলাদা মন্ত্রনালয় আছে। মন্ত্রনালয়ভিত্তিক বাজেট ভাগ হওয়ায় তারাও বরাদ্দ পাচ্ছে। মন্ত্রনালয় না হলেও অন্তত আলাদা বিশেষ বিভাগ থাকলে সুবিধা বঞ্চিত হতো না উন্নয়নের মূলধারা থেকে পিছিয়ে পড়া সমতালের আদিবাসী এবং দলিতরা।
তিনি আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে যে আদিবাসী বসবাস করে তার চেয়েও ১০ লাখের উপরে আদিবাসীর বাস করে সমতলে। অন্তত: পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে বিশেষ বিভাগ করে এবারের বাজেটে সমতলের আদিবাসীদের ও দলিতদের জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছিলেন তিনি। সেটি বিবেচনায় নেয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি বাস্তবায়ন হয়নি।
দাবি আদায়ে আদিবাসীদের আন্দোলন চালিয়ে যাবার আহবান জানান বাদশা। তিনি বলেন, সমতলের আদিবাসী এবং দলিতদের জন্য পৃথক বাজেট বরাদ্দের দাবিতে জানুয়ারী থেকেই আন্দলোন শুরু করতে হবে। সেই আন্দেলন চালিয়ে যেতে হবে জুন পর্যন্ত। তাদের এ আন্দোলনে একাত্ম হবার ঘোষণা দেন বাদশা।
এনএনএমসি চেয়ারপার্সন সজল কুমার চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাজশাহী জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. দেওয়ান মো: শাহরিয়ার ফিরোজ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি ড. আদিল হাসান রশিদ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক শাতিল সিরাজ, ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও রাজশাহী নগর সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উপদেষ্টা শহীদ হাসান সিদ্দিকী।
দাতা সংস্থা হেকস/ইপারের সহায়তায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, এনএনএমসির সমন্বয়কারী সারা মারান্ডী, কোষাধক্ষ্য সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম। মতবিনিময় সভায় আদিবাসী নেতা, উন্নয়ন কর্মী, রাজনীতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। সভায় ‘নেটওয়ার্ক ফর এমপাওয়ারমেন্ট অফ দলিত’স অ্যান্ড নৃতাত্ত্বিক ইন দি নর্থ-ওয়েস্ট অফ বাংলাদেশ’ প্রকল্পের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন আয়োজকরা। একই সঙ্গে সমতলের আদিবাসী ও দলিতদের উন্নয়নে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান।

 

রাজশাহীতে নারী সুদ ব্যবসায়ীর ৩ বছরের কারাদন্ড

রাজশাহী ব্যূরো: রাজশাহী মহানগরীর চিহ্নিত সুদ ব্যবসায়ী ও প্রতারক তহুরা বেওয়ার (৪৮) এর ৩ বছর সশ্রম কারাদন্ড ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদয়ে আরো ৩ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেছেন বিজ্ঞ আদালত। গতকাল বুধবার বিকাল ৩ টার দিকে রাজশাহীর অতিরিক্ত সিএমএম মোঃ জুলফিকার আলী এ রায় প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্ত তহুরা বেওয়া নগরীর মতিহার থানাধীন কাজলা বড় মসজিদ এলাকার মৃত: নূর মোহাম্মদ ওরফে নূরুর স্ত্রী। মামলা বাদী (স্বর্ণ ব্যবসায়ী) একই এলাকার মোঃ আনোয়ার হোসেন তুমুল জানায়, গত ইং ২৫ অক্টবর ২০১১সালে জমিসহ বাড়ি ক্রয় করার জন্য তহুরা বেওয়াকে তিনশত টাকা মূল্যের স্ট্যাম্পে নগদ সাড়ে ৯ লক্ষ টাকা দিয়ে লিখিত ভাবে বায়না করেন। পরে তহুরা বেওয়া কোটে যাওয়ার পথে বায়নার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর তহুরা বলে টাকা জমি কোনটাই দেবো না যা পারিস করে নিস। এ বিষয়ে কাজলা এলাকায় একাধীকবার বিচার সালিস বৈঠক হয়। তারপরও তহুরা নিজের সিদ্ধান্তে অটল থাকে। পরে কোন উপায় না দেখে তুমুল বাদি হয়ে বিজ্ঞ আদালতে দ:বি: ৪২০ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। মতিহার থানার মামলা নং-১০-সি/২০১২। অবশেষে ওই মামলায় গতকাল বুধবার চিহ্নিত সুদ ব্যবসায়ী ও প্রতারক তহুরা বেওয়ার ৩ বছর সশ্রম কারাদন্ড ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদয়ে আরো ৩ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেছেন বিজ্ঞ আদালত। এ রায়ে সন্তোশ প্রকাশ করেছেন, মামলার বাদি বাদী (স্বর্ণ ব্যবসায়ী) মোঃ আনোয়ার হোসেন (তুমুল)। মামলা চলাকালিন সময় বাদি পক্ষে ছিলেন, এ্যাডঃ আব্দুল্লাহ্ আল মামন সরকার। এবং আসামী পক্ষে ছিলেন, এ্যাডঃ মোঃ খুশিদ আলম বাবু। উল্লেখ্য, তহুরা বেওয়া দির্ঘ প্রায় ২০ বছর যাবত কাজলা এলাকায় সুদের ব্যবসা চালিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এলাকার একাধীক পরিবারের সাধারন মানুষ ও দিনমুজুর শ্রেণীর লোকজন তার নিকট সুদে টাকা গ্রহণ করে। চালাক ও কৌশলি তহুরা ফাঁকা স্ট্যাম্প ও ব্যাংকের ফাঁকা চেকে সহি নিয়ে সুদে টাকা দেয়। যতদিন কাস্টমার সুদ দেয় ততদিনই তার কাস্টমারের সাথে সম্পর্ক ভাল থাকে। কিন্তু টাকা পরিশোধ করে তার নিকট থেকে আলাদা হলেই বিপদ। বিপদ হলো: ফাঁকা চেক ও ফাঁকা স্ট্যাম্পে সে ইচ্ছামতো টাকার অংক যেমন: ২,৩,৫,৭,১০ লক্ষ টাকা বসিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করে। বর্তমানে এমনি অংকের মামলা দিয়ে সর্বশান্ত করেছে একাধিক পরিবারকে। এ বিষয়ে গত (৮ অক্টবর ২০১৭) ইং তারিখে নগরীর মতিহার থানাধীন কাজলা এলাকার সকল শ্রেণী পেশার ২শতাধীক মানুষ তহুরা বেওয়ার শাস্তির দাবিতে তালাইমারী ট্রাফিক মোড়ে একটি মানববন্ধন করে।

রাজশাহী-কলকাতা ট্রেনের দাবিতে এমপি বাদশার স্মারকলিপি

রাজশাহী ব্যূরো : রাজশাহী-কলকাতা রুটে দ্রুত যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু করার দাবিতে ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলাকে স্মারকলিপি দিয়েছেন রাজশাহী সদর আসনের এমপি ফজলে হোসেন বাদশা। রাজশাহীতে নিযুক্ত সহকারী হাইকমিশনার অভিজিৎ চট্টোপাধ্যয়ের মাধ্যমে তিনি এই স্মারকলিপি দেন। বুধবার দুপুরে এমপি ফজলে হোসেন বাদশা ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনারের কার্যালয়ে গিয়ে তার কাছে এই স্মারকলিপি হস্তান্তর করেন। এ সময় তার সঙ্গে রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকারও উপস্থিত ছিলেন।
এমপি বাদশা তার স্মারকলিপিতে বলেছেন, রাজশাহী থেকে কলকাতা পর্যন্ত একটি ট্রেনের বিষয়ে এর আগেও তিনি একটি চিঠি দিয়েছিলেন। রেলমন্ত্রী মুজিবুল হকও ঢাকায় কর্মরত ভারতের রেলওয়ে উপদেষ্টার সঙ্গে কথা বলেছেন এবং রাজশাহী-কলকতা ট্রেন সার্ভিস চালুর আগ্রহের কথা জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, খুলনা-কলকাতা ট্রেন চালু হওয়ায় এটা বাস্তবায়ন এখন আরও সহজ হবে। এটি চালু হলে উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে পর্যটন ও চিকিৎসার ক্ষেত্রে দুই দেশের জনগণের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন ও যোগাযোগ আরও বৃদ্ধি পাবে। বাদশা বলেন, উত্তরাঞ্চল থেকে যারা ভারতে চিকিৎসার জন্য মূলত দক্ষিণ ভারতে যান। কলকাতার হাওড়া হয়ে তাদের যেতে হয়। তাই এই ট্রেনটি বাংলাদেশের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। তিনি তার প্রস্তাবটি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনার জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।
এর আগে কয়েকমাস আগে একই দাবিতে তিনি ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে একটি স্মারকলিপি দিয়েছিলেন। এর প্রেক্ষিতে ভারত ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে। আগামী মাসে রাজশাহীতে অনুষ্ঠিতব্য বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটানের মধ্যে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের আলোচনায় বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব পাবে বলেও সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

সরকারের কর্মকা- সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে: ফারুক

রাজশাহী ব্যূরো : রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধুরী (এমপি) বলেছেন, সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড মাঠ পর্যায়ে সঠিক ভাবে আপনাদেরকে বাস্তবায়ন করতে হবে। সরকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প তৈরি করে অর্থ বরাদ্দ দিয়ে উপজেলা পর্যায়ের সরকারী বে-সরকারী কর্মকর্তাদের মাধ্যমেই মাঠ পর্যায়ে বাস্তাবায়ন করে থাকে। সরকারের উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রভাব মুক্ত থেকে বাস্তবায়ন আপনাদেরকেই করতে হবে।
বুধবার দুুপুরে তানোর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মাসিক উন্নয়ন সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়ন কাজ সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করে এলাকার উন্নয়নে আপনাদের ভুমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ন। তানোর উপজেলা চেয়ারম্যান এমরান আলী মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাসিক উন্নয়ন সভা উপস্থাপনা করেন তানোর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শওকাত আলী।
উক্ত মাসিক উন্নয়ন সভায় সকল দপ্তরের কর্তকর্তাদের বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা মনোযোগ দিয়ে শোনে পরিকল্পনা অনুযায়ী বাস্তবায়ন করার পরামর্শ দেন। এর আগে তিনি তানোর উপজেলার বিভিন্ন এনজিও কর্মকর্তাদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনীময় করেন।

রাজশাহীতে ৫৫৫ বোতল ফেনসিডিল গ্রেফতার ২

রাজশাহী ব্যূরো: রাজশাহী নগরীতে ৫৫৫ বোতল ফেনসিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে নগরীর শ্যামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকা তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব-৫ রাজশাহীর একটি দল। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, চরখিদিরপুরের রেন্টু শেখ (৩৫) ও মোস্তাকিন (৪৭)। এনিয়ে সকালেই নগরীর মতিহার থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করে র‌্যাব।
বিকেলে র‌্যাব-৫ গণমাধ্যমকে জানায়, সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই অভিযান চালায় র‌্যাবের ক্রাইম প্রিভেনশন স্পেশালাইজড কোম্পানীর একটি দল। এতে নেতৃত্ব দেন র‌্যাব-৫ এর মেজর শিবলী মোস্তফা। এসময় ৫৫৫ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করা হয় ওই দুজনকে। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তারা মাদক ব্যবসায় নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন।

ধর্ষণের দায়ে সৎ বাবার যাবজ্জীবন

রাজশাহী ব্যূরো: মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে রাজশাহীতে সৎ বাবা নবাব আলী লোবার (৩৭) যাবজ্জীবন সাজা হয়েছে। বুধবার দুপুরে রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মনসুর আলম জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। আদালত একই সঙ্গে নবাব আলীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদণ্ড দেন আদালত।
দণ্ডিত নবাব আলী রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার চন্দনমাড়িয়া এলাকার আশরাফ আলী। রায় ঘোষণাকালে আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন তিনি। পরে তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়। ঘটনা জেনেও গোপন করার অভিযোগে আসামী ছিলেন ওই কিশোরীর নানী জুলেখা বেওয়া। তবে অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় তাকে খালাস দেন আদালত।
রাজশাহী জেলা জজ আদালতের পরিদর্শক খুরশিদা বানু কনা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মামলার বাদী ১৪ বছরের কিশোরী। সম্পর্কে সে নবাব আলীর সৎ মেয়ে। ওই কিশোরীর বাবার মৃত্যুর পর নবাব আলীকে বিয়ে করেন তার মা। ২০১১ সালে নবাব দ্বিতীয় স্ত্রী ও আপন মেয়েকে ঘুমের ওষুধ সেবনে ঘুম পাড়িয়ে সৎ মেয়েকে ধর্ষণ করেন। ঘটনাটি পরে ওই কিশোরী তার নানিকে জানায়। তবে মেয়ের সংসার ভেঙে যাওয়ার ভয়ে তিনি বিষয়টি গোপন রাখেন। এ ঘটনার সাত মাস পর ২০১২ সালের ৪ এপ্রিল নবাব আবারো তার স্ত্রীকে জুসের সঙ্গে মিশিয়ে ঘুমের ওষুধ সেবন করান। এরপর ওই কিশোরীকে আবারো ধর্ষণ করেন তিনি।
এ ঘটনায় ওই বছরের ১৯ জুলাই ওই কিশোরী সৎ বাবার বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। ঘটনা গোপন করার চেষ্টায় তার নানীকেও আসামি করা হয় ওই মামলায়। রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন আইনজীবী ইসমত আরা। আর আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী খায়রুন্নাহার কাজল।

অপহরণের দায়ে প্রেমিক গ্রেপ্তার

রাজশাহী ব্যূরো: রাজশাহীর তানোরে মাদ্রাসা পড়–য়া এক ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে কথিত প্রেমিক মাসুদ রানা (২১) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরআগে তার বিরুদ্ধে তানোর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ওই ছাত্রীর পিতা। প্রেমিক মাসুদ রানা উপজেলার কামারগাঁ ইউনিয়ন এলাকার মাদারীপুর গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে।
জানা গেছে, উপজেলার তানোর পৌর এলাকার জনৈক ব্যাক্তির মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণী পড়–য়া এক ছাত্রী সোমবার বিকেলে শিক্ষককে প্রাইভেট পড়ার টাকা দিতে গিয়ে কাশেম বাজার এলাকা থেকে উধাও হয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীর পরিবার রাজশাহী শহর থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার ও কথিত প্রেমিককে আটক করে থানা পুলিশের কাছে নিয়ে আসেন। পরে ওই ছাত্রীর পিতা বাদি হয়ে তানোর থানায় কথিত প্রেমিক মাসুদের বিরুদ্ধে একটি অপরহরণের মামলা দায়ের করেন।
ওই ছাত্রীর পিতা বলেন, দীর্ঘ দিন থেকে তার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো মাসুদ। তাতে রাজি না হওয়ায় তার মেয়েকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়েছিলো প্রতারক মাসুদ রানা। তবে আটক মাসুদের পরিবারের দাবী, ওই ছাত্রীর সাথে মাসুদের প্রেমের সর্ম্পক ছিলো।
এ ব্যাপারে তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপহরণ মামলা করা হয়েছে। মামলার প্রেক্ষিতে মাসুদকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

রাজশাহী ছাত্রদলের ৪৭ ইউনিট কমিটি বিলুপ্ত

রাজশাহী ব্যূরো: রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সকল ইউনিট কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ছয়টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, চারটি থানা ও ৩৭টি ওয়ার্ড কমিটি রয়েছে। রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দেয়া হয়।
মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি জানান, মেয়দ শেষ হওয়ার কারণে নগর ছাত্রদলের সকল ইউনিট কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে, রাজশাহী কলেজ, রাজশাহী সরকারী সিটি কলেজ, রাজশাহী নিউ গভ: ডিগ্রী কলেজ, রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও আইএইচটি শাখা।
একই সঙ্গে বোয়ালিয়া থানা, রাজপাড়া থানা, শাহমখদুম থানা ও মতিহার থানা শাখা এবং মহানগরীর ৩৭টি সাংগঠনিক ওয়ার্ড ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা বিলুপ্তি ঘোষণা করা হয়। সম্মেলনের মাধ্যমে এ সব ইউনিটে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে জানান তিনি।

মোহনপুরে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

রাজশাহী ব্যূরো : রাজশাহীর মোহনপুরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে কর্মসূচি প্রণয়নের নিমিত্তে প্রস্ততিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বেলা ১২ টায় উপজেলা হলরুমে নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার-উল-হালিমের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা পলিষদ হলরুমে আয়োজিত এ সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান উপধাক্ষ্য মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বানেছা বেগম, সহকারী কমিশনার(ভূমি) মির্জা ইমাম উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন কবিারজ,সিনিয়র সহ-সভাপতি দিলীপ কুমার সরকার তপন,যুগ্ম সম্পাদক পৌরমেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহবুব হাসান রাসেল, জেলা পরিষদ সদস্য শফিকুল ইসলাম মাষ্টার, প্রধান শিক্ষক সোহরাব আলী, যুবলীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন, সমাজ সেবা কর্মকর্তা তৌহিদুজ্জামান,প্রকল্প কর্মকর্তা বিপুল কমুার মালাকার,শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, (ওসি) তদন্ত আফজাল হোসেন,ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মাষ্টার মোহনপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রভাষক সাদিকুল ইসলাম স্বপন সাধারন সম্পাদক মুত্তাকিন আলম সোহেল প্রমুখ।
এ সভার আগে আগামী ২৫ নভেম্বর দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসাবে মোহনপুরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষনকে বিশ্ব ঐতিহ্যের দলিল হিসাবে(ওয়ার্ল্ড ডকুমেন্টরী হেরিটেজ) জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা (ইউনেস্কো) কর্তৃক আন্তকর্জাতিক স্বীকৃতি দেয়ার আনন্দ র‌্যালী বিভিন্ন কর্মসূচি বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

 

গোদাগাড়ীতে স্কাউট ইউনিট লিডার ওরিয়েন্টেশন

রাজশাহী ব্যূরো: বাংলাদেশ স্কাউটস গোদাগাড়ী উপজেলা স্কাউটস এর আয়েজনে উপজেলা স্কাউটস এর ব্যবস্থাপনা ও স্কাউটস রাজশাহী অঞ্চলের পরিচালনায় ২৩৯ তম স্কাউটস লিডার ওরিয়েন্টেশন কোর্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ২২ নভেম্বর সকালে উপজেলা কেন্দ্রীয় ওডিটোরিয়ামে এ আয়োজন করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সভাপতি গোদাগাড়ী উপজেলা স্কাউটসের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন- গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব ইসাহক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- গোদাগাড়ী উপজেলা স্কাউটসের কমিশনার এনামুল হক, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও গোদাগাড়ী উপজেলা স্কাউটসের সহ সভাপতি শামশুল কবির, রাজশাহী জেলা স্কাউটসের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক, কোর্স লিডার ইয়ার মোহাম্ম্দ, গোদাগাড়ী উপজেলা স্কাউটসের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুজ্জামান, গোদাগাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মঈনুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ অংশ নেন।
ওরিয়েন্টেশন কোর্সে ৫৪ জন ইউনিট লিডারকে প্রশিক্ষণ ও সনদ প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন গোদাগাড়ী উপজেলা স্কাউটসের কোষাধাক্ষ্য হামিদুজ্জামান।

রাজশাহীর বাঘা পৌর নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী চুড়ান্ত, সময় নিচ্ছে আওয়ামী লীগ

রাজশাহী ব্যূরো : একযুগ পর আগামী ২৮ ডিসেম্বর রাজশাহীর বাঘা পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে মঙ্গলবার রাতে দলীয় প্রার্থী চুড়ান্ত করেছে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটি। সেখানে দু’জন প্রার্থী সাবেক মেয়র আবদুর রাজ্জাক ও পৌর বিএনপির সভাপতি কামাল হোসেনকে একত্রিত করে আবদুর রাজ্জাক’কে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। প্রক্ষান্তরে এখন পর্যন্ত প্রার্থী চুড়ান্ত করতে পারেনি বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ক্রমে পৌর কমিটি’র পক্ষ থেকে ৩ জন এবং জেলা কমিটির পছন্দে ১ জন প্রার্থীর নাম ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।
স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, আসন্ন বাঘা পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ থেকে ৮ জন এবং বিএনপি থেকে ৪ জন প্রার্থী দলীয় মনোনয়নের জন্য দৌড়-ঝাপ শুরু করে। এ দিক থেকে মঙ্গলবার (২১-১১-১৭) রাতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটি দু’জন প্রার্থী সাবেক বাঘা পৌর মেয়র আবদুর রাজ্জাক ও পৌর বিএনপির সভাপতি কামাল হোসেনকে ঢাকায় একত্রিত করে সমঝতার মাধ্যমে আবদুর রাজ্জাক’কে দলীয় মনোনয়ন দেন।
অপর দিকে স্থানীয় সাংসদ এর মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ক্রমে বাঘা পৌর কমিটি ৮ প্রার্থীর তালিকা থেকে ৩ জন প্রার্থীর নামে কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন। এরা হলেন- বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা আক্কাস আলী, বাঘা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক বাবুল ইসলাম এবং পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মামুন হোসেন। এ দিক থেকে জেলা আওয়ামী লীগ আমানুল হাসান দুদু নামে এক প্রার্থীর নাম কেন্দ্রে পাঠিয়েছে।
তবে আওয়ামী লীগের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছেন, আগামী ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় এই চার প্রার্থীর মধ্যে থেকে একজনকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে চুড়ান্ত করবেন। এ দিক থেকে বর্তমান মেয়র আক্কাস আলী ও বাবুল ইসলামের মধ্যে যে কেও হতে পারে বলেও অনেকে মন্তব্য করছেন। অপর একটি রাজনৈতিক দল জায়ামাতে ইসলাম নির্বাচনে অংশ নিতে না পারায় তারা সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে বাঘা পৌর জামায়াতে আমীর প্রভাষক সাইফুল ইসলাম মনোনয়ন উত্তোলন করেছেন।
এদিক থেকে দিন যতই অতিবাহিত হচ্ছে, ততই কদর বাড়ছে ভোটারদের। বিশেষ করে ৯ টি ওয়ার্ডের প্রায় শতাধিক প্রার্থী এখন প্রচারনায় মুখর। এ সমস্ত প্রার্থীদের ক্ষেত্রে দলের বিষয়ে তেমন প্রভাব না পড়লেও মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে ভোট হওয়ায় বড় দু’দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে লড়াই সু-নিশ্চিত।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বিকেল পর্যন্ত মোট ৫৯ জন মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেছেন। এর মধ্যে চারজন মেয়র পদে মনোনয়ন তুলেছেন। অবশিষ্ট ৫৫ জন কাউন্সিলর পদে। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ২৭ হাজার ৭৮৯ জন। মনোনয়ন জমা দেয়ার শেষ তারিখ ২৭ নভেম্বর ।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2016-2020 asianbarta24.com

Developed By Pigeon Soft