1. [email protected] : AK Nannu : AK Nannu
  2. [email protected] : arifulweb :
  3. [email protected] : F Shahjahan : F Shahjahan
  4. [email protected] : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  5. [email protected] : Arif Prodhan : Arif Prodhan
  6. [email protected] : Farjana Sraboni : Farjana Sraboni
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন

নীলফামারী জেলার জেলা পরিষদ নির্বাচনের বিস্তারিত ফলাফল

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৬
  • ৩০ Time View

01 নীলফামারী  থেকে মহিনুল ইসলাম সুজন: বুধবার ২৮শে ডিসেম্বর দেশের ৬১টি জেলায় একই দিনের জেলা পরিষদ নির্বাচনের মধ্যে নীলফামারী জেলা পরিষদ নির্বাচনও অনুষ্ঠিত হয়েছে। আর এ জেলা পরিষদ নির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন (মোটরসাইকেল প্রতীক) ৩১ ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন। তার প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা-৪৪২টি। এ নির্বাচনে তার একমাত্র নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নীলফামারী সদ্য সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাডভোকেট-মমতাজুল হক (আনারস প্রতীক) নিয়ে ভোট পেয়েছেন ৪১১টি।

পাশা-পাশি একই নির্বাচনে নীলফামারীর ১৫টি ওয়ার্ডে ও ৫টি সংরক্ষিত নারী আসনে যারা কাউন্সিলর হিসাবে জয়লাভ করেছে তাদের তালিকা ভোট গ্রহন ও ভোট গগনার পর শেষ বিকালে বেসরকারীভাবে ফলাফল ঘোষনা করেছেন উক্ত নির্বাচনের জেলা রিটার্নীং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক মোঃ জাকীর হোসেন।

নিচে একই ভিত্তিতে বেসরকারী ভাবে সেই ফলাফলটি পদবীসহ তুলে ধরা হলো।
> সংরক্ষিত আসনঃ-
ডিমলা, কেতকীবাড়ি, ভোগডাবুড়ী, জোড়াবাড়ী, বোড়াগাড়ী, বালাপাড়া, বামুনিয়া, পাঙ্গামটুকপুর, গোমনাতী, পশ্চিম ছাতনাই, পুর্ব ছাতনাই, টেপাখড়িবাড়ী ও খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ১ নম্বর ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ৩ জন। তারা হলেন- মিনতি রানী সেন (ফুটবল), শ্যামলী আক্তার  (দোয়াত কলম) ও মেহেরুন আকতার (হরিন)। এদের মধ্যে ৯৮ ভোট পেয়ে বিজয় লাভ করেন মেহেরুন আকতার (হরিন)।

জলঢাকা পৌরসভা, ডিমলার-গয়াবাড়ী, নাউতারা, খালিশা চাপানী, ঝুনাগাছ চাপানী, জলঢাকার-কাঁঠালী, গোলমুন্ডা, বালাগ্রাম, গোলনা, ধর্মপাল, শিমুলবাড়ী ও মীরগঞ্জ ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ৫ জন।তারা হলেন- ভারতী রানী রায় (ফুটবল), রোকসানা পারভীন দিপ্তি (হরিন), আল্পনা রায় (লাটিম), লায়লা বেগম (টেবিল ঘড়ি) ও আফরোজা বেগম (দোয়াত কলম)।এখানে ৫২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন-রোকসানা পারভীন দীপ্তি (হরিন)।তিনি ডিমলা উপজেলার গয়াবাড়ী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান-আঃ রহমান(রহমান চেয়ারম্যান)এর মেয়ে ও উক্ত ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শরীফ ইবনে ফয়সাল মুনের বোন।

> ডোমার পৌরসভা, সোনারায়, হরিণচড়া, ডোমার ইউনিয়ন, চওড়াবড়গাছা, গোড়গ্রাম, পলাশবাড়ী, লক্ষ্মীচাপ, টুপামারী, রামনগর, কচুকাটা ও পঞ্চপুকুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ৩ নম্বর ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ৩ জন। তারা হলেন- শিউলী আক্তার বানু (ফুটবল), রেশমা আকতার  (দোয়াত কলম)সান্তনা চক্রবর্তী (হরিন)। এখানে ৬৫ ভোটে জয়ী হয়েছন- শিউলী আক্তার বানু (ফুটবল)।

নীলফামারী পৌরসভা, সৈয়দপুর পৌরসভা, ইটাখোলা, কুন্দুপুকুর, সোনারায়, সংগলশী, চড়াইখোলা, চাপড়া সরমজানী,  বাঙ্গালীপুর, বোতলাগাড়ী ও কামারপুকুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ৪ নম্বর ওয়াডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ২ জন।তারা হলেন- সানজিদা বেগম লাকী (ফুটবল) ও ইসরাত জাহান পল্লবী (দোয়াত কলম)। এখানে ৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন- ইসরাত জাহান পল্লবী (দোয়াত কলম)।

কিশোরীগঞ্জ, বাহাগিলী, পুটিমারী, নিতাই, কাশিরাম বেলপুকুর, খাতামধুপুর, খুটামারা, ডাউয়াবড়ী, শৌলমারী, কৈমারী ও বড়ভিটা, মাগুড়া, গাড়াগ্রাম, রনচন্ডি,  ও চাঁদখানা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ৫ নম্বর ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ৪ জন।তারা হলেন- ফাতেমা বেগম (হরিন), হাসিনা বেগম (লাটিম), শ্রীমতি অনিতা রানী (দোয়াত কলম)নিলুফা ইয়াছমিন (ফুটবল)। এখানে ৮৭ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন-ফাতেমা বেগম (হরিন)।

আর সাধারন সদস্য পদে দুইজন লটারীর মাধ্যমে এবং বাকী সব প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে ভোটের মাধ্যমেই নিজের জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন।পর্যায়ক্রমেঃ-

কেতকীবাড়ি, ভোগডাবুড়ী, জোড়াবাড়ী ও বোড়াগাড়ী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১ নম্বর ওয়ার্ডে সাধরাণ কাউন্সিলর প্রার্থী ছিলেন ৬ জন।তারা হলেনঃ- আল মামুন করিম (অটোরিক্সা), মুরাদ আলী প্রামানিক (টিউবওয়েল), আব্দুলরাহ (বৈদ্যুতিক পাখা), এ,কেএম জাহাঙ্গীর আলম বসুনিয়া (হাতী), ফিরোজ পারভেজ (ঘুড়ি) ও আতাউর রহমান (তালা)।এখানের ভোট গ্রহন করা হয় মির্জাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়। এখানে ভোটার সংখ্যা ৫৩ জন।এবং ২২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন-আতাউর রহমান (তালা)।

ডিমলা, বালাপাড়া, বামুনিয়া, পাঙ্গামটুকপুর ও গোমনাতী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ২ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ৬জন।তারা হলেন- ফেরদৌস পারভেজ (টিউবওয়েল), সোহেল পারভেজ জাহিদুল(বৈদ্যুতিক পাখা) তৈয়ব আলী (হাতী), আব্দুল হাকিম ভুট্টু(ঘুড়ি), নুরুজ্জামান বাবুল(অটোরিক্সা), সিদ্দিকুর রহমান লায়ন (তালা)। এখানে ভোট গ্রহন করা হয় পাঙ্গা মহেশ লালা উচ্চ বিদ্যালয়ে।এবং ভোটার সংখ্যা ৬৮জন।আর ৩৯ভোটে জয়ী হয়েছেন-ফেরদৌস পারভেজ(টিউবওয়েল),তিনি ডিমলা সদর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাসেম সরকারের ছেলে।

পূর্ব ছাতনাই, পশ্চিম ছাতনাই, টেপাখড়িবাড়ী ও খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ৩ নম্বর ওয়ার্ডের  সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ২জন। তারা হলেন- আশফাকারুল হক পিনু (তালা) ও মতিন খান (টিউবওয়ে।এখানের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় জনতা ডিগ্রি কলেজে।এখানে ভোটার সংখ্যা ৫২জন।আর ২৯ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন- মতিন খান( টিউবওয়েল) সে পুর্ব ছাতনাই(কলোনী) ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খানের ভাই।

খালিশা চাপানী, গয়াবাড়ী, নাউতারা, ও ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ৪ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ছিল ৫জন।
> তারা হলেনঃ- সেলিম সরকার(অটোরিক্সা) মোজ্জম্মেল হক (তালা), মোজাফ্ফর হোসেন (বৈদ্যুতিক পাখা), এ,টি,এম নুর হোসেন(হাতী), ও রফিকুল ইসলাম( টিউবওয়েল)। এখানের ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত হয় ডালিয়া দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে।এবং ভোটার সংখ্যা ৫২জন।আর ১৮ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন- সেলিম সরকার (অটোরিক্সা) তিনি খালিশা চাপানী।
কাঁঠালী, গোলমুন্ডা, বালাগ্রাম ও জলঢাকা পৌরসভা নিয়ে গঠিত ৫ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলার প্রাথী ৫ জন। এরা হলো এ্যাডঃ মোতাহারুল ইসলাম মুনান (অটোবিক্সা), আসাদুজ্জামান (হাতী), তহমিদুল ইসলাম(টিউবওয়েল),মোশাররফ হোসেন(তালা) ও মোহম্মদ শামছুল আলম(বৈদ্যুতিক পাখা)।এখানের ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত হয় জলঢাকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে। এখানে ভোটার সংখ্যা ৫২ জন।এবং ১৯টি ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছে মোশাররফ হোসেন(তালা)।

গোলনা, ধর্মপাল, শিমুলবাড়ী ও মীরগঞ্জ ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলার প্রার্থী ৩ জন।তারা হলেন- মীর হামিদুল এহসান চানু (তালা), নব কুমার রায় (বক) ও আলী হোসেন (টিউবওয়েল)। এখানের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় মীরগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে। এখানে ভোটার সংখ্যা ৫২ জন। এখানে ৩৫ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন  আলী হোসেন (টিউবওয়েল)।

> ডোমার পৌরসভা, সোনারায়, হরিণচড়া ও ডোমার ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলার প্রার্থী ৫জন।তারা হলেনঃ- ফরহাদ আজাদ(বৈদ্যুতিক পাখা), হাফিজুল ইসলাম(তালা) তৈয়বর রহমান(অটোরিক্সা), মিজানুর রহমান(টিউবওয়েল) ও মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী(হাতী)।এখানের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় ডোমার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে। এখানে ভোটার সংখ্যা ৫৩ জন। এবং এখানে  ভোট উভয় প্রার্থী সমান ভোট পাওয়ায়  লটারীর মাধ্যমে ২২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী(হাতী)।

চওড়াবড়গাছা, গোড়গ্রাম, পলাশবাড়ী ও লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ৬ জন।তারা হলেন- গোলাম মোস্তফা(তালা),দুলাল চন্দ্র রায় (বৈদ্যুতিক পাখা), বীরেন্দ্র নাথ শর্মা (হাতী), মাহবুব জর্জ (অটোরিক্সা), মোবাশ্বের রাশেদিন (টিউবয়েল) ও মন্টু চন্দ্র সরকার (ঘুড়ি)। এখানের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় পলাশবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।এবং ভোটার সংখ্যা ৫২ জন। এখানেও  সমান,সমান ভোট পাওয়ায় লটারীর মাধ্যমে ১৬ ভোট  পেয়ে জয়ী হয়েছেন মাহবুব জর্জ (অটোরিক্সা)।

টুপামারী, রামনগর, কচুকাটা ও পঞ্চপুকুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ৯ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ৩ জন।তারা হলেন- রফিকুল ইসলাম (টিউবওয়েল), শফিকুল ইসলাম (হাতি) ও আব্দুল হান্নান (তালা)।এখানের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় চাঁদেরহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে।এবং ভোটার সংখ্যা ৫২ জন। এখানে ২০ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন- আব্দুল হান্নান (তালা)।

নীলফামারী পৌরসভা, ইটাখোলা, কুন্দুপুকুর ও খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১০ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলার প্রার্থী ৩জন।তারা হলেন- আতাউর রহমান বাবু (তালা), দেওয়ান বিপ্লব আহমেদ (হাতি) ও এ,কে,এম আলমগীর হক প্রামানিক (টিউবওয়েল)।তাদের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় ছমির উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে।এবং ভোটার সংখ্যা ৫৫ জন।আর ২৫ ভোট পেয়ে জী হন- দেওয়ান বিপ্লব আহমেদ (হাতি)।

সোনারায়, সংগলশী, চড়াইখোলা ও চাপড়া সরমজানী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১১ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলার প্রার্থী ৪ জন।তারা হলেন- সাইদুল রহমান (হাতি), সোহেল রানা (তালা), রুহুল আমিন (আটোরিক্সা) ও মোঃ আব্দুল হান্নান শাহ্ মানু (টিউবওয়েল)।এখানকার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় চড়াইখোলা নগর দারোয়ানী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভোটার সংখ্যা ৫১জন।আর ২৫ ভোট পেয়ে জয়ী হন- সাইদুল রহমান (হাতি)।

সৈয়দপুর পৌরসভা, বাঙ্গালীপুর, বোতলাগাড়ী ও কামারপুকুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১২ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলার প্রার্থী ৪জন।তারা হলেন- জিকো আহমেদ (টিউবওয়েল), সফিকুল ইসলাম (অটোরিক্সা), সাইদুল ইসলাম (হাতি) ও আব্দুল গফুর সরকার (তালা)।এখানকার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় সৈয়দপুর লায়ন্স স্কুল এ্যান্ড কলেজে। ভোটার সংখ্যা ৬২ জন। এখানে ৩৫ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন- আব্দুল গফুর সরকার (তালা)।

বাহাগিলী, পুটিমারী, নিতাই, কাশিরাম বেলপুকুর ও খাতামধুপুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রাথী ৪ জন।তারা হলেন- কামরুজ্জামান (হাতি), শাহ মোঃ ববুল কালাম বারী (টিউবওয়েল), শামীম চৌধুরী  (বৈদ্যুতিক পাখা) ও মজিবর রহমান (তালা) ।তাদের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় নিতাই উচ্চ বিদ্যালয়ে।এবং ভোটার সংখ্যা ৬৭ জন।আর ২৭ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন- শামীম চৌধুরী  (বৈদ্যুতিক পাখা)।

খুটামারা, ডাউয়াবড়ী, শৌলমারী, কৈমারী ও বড়ভিটা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রাথী ৪ জন।তারা হলেন- জুলফিকার আরী (টিউবওয়েল) রোকনুজ্জামান সেলিম (তালঅ) আতোয়ার হোসেন (অটোরিক্সা) ও সাইফুল ইসলার মুকুল (হাতী)। তাদের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় বিন্নাকুড়ি বিসিএস উচ্চ বিদ্যালয়ে। ভোটার সংখ্যা ৬৭ জন।আর ৫০ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন- জুলফিকার আরী (টিউবওয়েল) ।
>
> কিশোরীগঞ্জ, মাগুড়া গাড়াগ্রাম, রনচন্ডি,  ও চাঁদখানা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ৬জন।তারা হলেন- সাজেদুল ইসলাম (টিউবওয়েল), শ্রী ভুবন চন্দ্র মহন্ত (বৈদ্যুতিক পাখা), আবুল সানওয়ার চৌধুরী বিয়েজ (ঢোল), আজিজুল ইসলাম (অটোরিক্সা), ফারুক হোসেন (হাতি) ও হোসেন শহীদ সোহারাওয়ার্দি (তালা) ।এখানকার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় কিশোরীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে। ভোটার সংখ্যা ৬৭ জন। এখানে ২৪ ভোট পেয়ে জয়লাভ করে ফারুক হোসেন (হাতী মার্কা)।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2016-2020 asianbarta24.com

Developed By Pigeon Soft