কলকাতায় পশ্চিমবাংলা এবং বাংলাদেশের দুর্যোগ মোকাবেলা নিয়ে বৈঠক: (ভিডিও)

kk1কলকাতা থেকে গৌতম মালিক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য এবং বাংলাদেশ এই দুই বাংলার মধ্যে দুর্যোগ মোকাবেলা ব্যবস্থা খতিয়ে পারস্পরিক সমন্বয় আরও জোরদার করার লক্ষ্যে মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্য প্রশাসনিক কার্যালয় নবান্নে বৈঠক করলেন বাংলাদেশের দুর্যোগ মোকাবেলা ব্যবস্থাপনা এবং ত্রান মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া)।  কলকাতায় এসে তিনি নবান্নে বৈঠক করলেন পশ্চিমবঙ্গের বিপর্যয় মোকাবেলা মন্ত্রী জাভেদ খানের সঙ্গে।

kk-3এদিন বৈঠক শেষে মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) বীর বিক্রম বলেন, ইতিপূর্বে আমরা ভারতে এসে এশিয়ান ডিজাষ্টার কনফারেন্সে যোগ দিয়েছিলাম। আজ পশ্চিমবঙ্গে এসেছি। মূলত বাংলাদেশ এবং পশ্চিমবাংলার দুর্যোগ একই ধরনের। বন্যা, খরা, ভুমিকম্প এমনকি বজ্রপাতের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রায় একই রকমের দুই বাংলায়। তাই পশ্চিমবাংলা কিভাবে সেসব দুর্যোগ মোকাবেলা করে এবং কি কি জিনিস ব্যাবহার করা হয় দুর্যোগ মোকাবেলার ক্ষেত্রে সেই সমস্ত বিষয় নিয়ে এদিন আলোচনা হয়। দুই বাংলার মধ্যে দুর্যোগ মোকাবেলার ভালো দিকগুলি যাতে বিনিময় করে আরও শক্তহাতে দুই বাংলার দুর্যোগ মোকাবেলা করা হয় সেই লক্ষ্য নিয়েই এদিনের বৈঠক।

kk-2 মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই বাংলাদেশে জলবায়ু ও দুর্যোগ মোকাবেলা ক্ষেত্রে পুরস্কৃত হয়েছেন। দুর্যোগ মোকাবেলার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আজ সারা বিশ্বের কাছে রোল মডেল। আমরা আমাদের দেশের সেই সমস্ত দুর্যোগ মোকাবেলা ব্যবস্থা পশ্চিমবাংলার সঙ্গে শেয়ার করতে চাই।

এদিন তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশের ইলিশ নিয়ে বলেন, বাংলাদেশ ইলিশের দেশ। দুই বাংলার মানুষ ইলিশ ভালোবাসে। তবে বাংলাদেশে ইলিশ কমে যাওয়ার ক্ষেত্রে হাসিনা সরকার কড়া ব্যাবস্থা নিয়েছেন বলেও জানান মন্ত্রী। বলেন, কারেন্ট জাল ও ইলিশের ডিম পাড়ার সময় ইলিশ ধরা নিষেধ ঘোষনা করা হয়েছে। বাংলাদেশের পোষ্ট গার্ডকে এই বিষয়ে কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চলতি বছরে নিষেধাজ্ঞা না মানায় ৫ থেকে ৬ হাজার জেলেকে জেল দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। বলেন, ইলিশের জাটকা (ছোট ইলিশ) না ধরার সময়  জেলেদের আমরা সরকারের তরফে ৪০ কেজি করে চাল দিয়েছি। পশ্চিমবাংলায় বাংলাদেশের ইলিশ না আসার ব্যাপারে এদিন মন্ত্রীকে জানানো হলে মন্ত্রী বলেন, আমি বিষয়টি বাংলাদেশে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানাবো। আশা করি আপনারা বঞ্চিত হবেন না। এদিন বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর আক্রমণের বিষয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, আমরা বাংলাদেশে হিন্দুদের সুরক্ষা নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাবো ইনশাআল্লহ।

https://youtu.be/Yi0RZuU6nsM

এদিন নবান্নের এই বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের বিপর্যয় মোকাবেলা মন্ত্রী জাভেদ খান বলেন, আমাদের রাজ্যে এবং  বাংলাদেশের দুর্যোগ মোকাবেলার বিষয়টি নিয়েই মত বিনিময় হয়েছে এই বৈঠকে। দুই বাংলার প্রাকৃতিক বিপর্যয় কার্যত একই ধরনের, তাই দুই বাংলা সমন্বয়ে একে অপরের থেকে শিক্ষা নেওয়ার লক্ষ্যেই এই বৈঠক। তবে দুর্যোগ মোকাবেলার ক্ষেত্রে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে যৌথভাবে কোনও পরিকাঠামো গড়ে তোলা হবে কিনা সেই ব্যাপারে  জাভেদ খান বলেন সেটা দিল্লি¬র ব্যাপার। দিল্লি¬ ও বাংলাদেশ সেই ব্যাপারে যেরকম ব্যাবস্থা নেবে সেই রকমই হবে।

তবে দুই বাংলার মধ্যে যেহেতু একই ধরনের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ধরন, তাই দুই বাংলা মত বিনিময়ের মাধ্যমে একে অপরের থেকে শিক্ষা নিয়ে তাদের বিপর্যয় ব্যাবস্থাকে আরও শক্তিশালী যাতে করা যায় সেই লক্ষ্যেই এই বৈঠক বলে জানান তিনি।
এদিন এই বৈঠকে  বাংলাদেশের মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের সচিব মহম্মদ শাহ কামাল,

মহাপরিচালক রিয়াজ আহমেদ, অতিরিক্ত সচিব সত্যব্রত সাহা, যুগ্ম সচিব মহম্মদ মহসিন। এছাড়াও এই বৈঠকে  উপস্থিত ছিলেন কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ উপ দূতাবাসের উপরাষ্ট্রদূত জকি আহাদ। মুখ্য প্রেস সচিব মোফাকখারুল ইকবাল সহ উচ্চ পদস্থ আধিকারীকরা।

https://youtu.be/fgWFY93IZc8

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.