বগুড়ার শেরপুরে ১০ টাকা কেজির চাল বিতরণের তালিকা সংশোধন

%e0%a7%a8%e0%a7%a8%e0%a7%a8শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুরে ১০ টাকা কেজি দরের চাল সঠিকভাবে বন্ঠনের জন্য পূর্বের তালিকা সংশোধন করে প্রকৃত গরীবদের তালিকা করা হয়েছে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ১২ হাজার লোক মাসে ৩০ কেজি চাল পাচ্ছেন। অপরদিকে ডিলারদের কোন প্রকার অনিয়ম না করতে কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

জানা যায়, ২০০৫ সালে সরকার গরীবদের খাদ্য ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে প্রতিটি উপজেলায় গরীব অসহায় মানুষদের মাঝে ১০ টাকা কেজি দরে মাসে ৩০ কেজি চাল দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সেই আলোকে সেই সময় প্রতিটি পরিবারের ১জনকে মাসে ৩০ কেজি চাল দেয়া হচ্ছিল। এর মাঝে বেশ কয়েক বছর এই চাল বিতরণ বন্ধ থাকে। সরকার আবারো গতমাস থেকে এই চাল দেয়ার সিদ্ধান্ত নিলে পুরনো সেই তালিকা ও ডিলারদের মাধ্যমে চাল দিতে

গিয়ে নানা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়। তালিকা পরীক্ষা নিরিক্ষা করে দেখা যায়, অনেক লোক মারা গেছে, কেউবা এলাকা পরিবর্তন করেছেন, আবার অনেকেই এই পাঁচ বছরে স্ধসঢ়;চ্ছল হয়েছেন। ফলে চাল বিতরনে সমস্যার সৃষ্টি হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে তালিকা সংশোধন শুরু হয়।

ইতিমধ্যেই ৮টি ইউনিয়নের তালিকা সংশোধন শেষ হয়েছে ও ২টি ইউনিয়নের তালিকা প্রস্তুত শেষ পর্যায়ে রয়েছে। সংশোধিত তালিকা অনুযায়ী কুসুম্বি ইউানয়নে ৫৯ জন, গাড়িদহ ইউনিয়নে ২৪৫ জন, খামারকান্দি ইউনিয়নে ১৫০জন, খানপুর ইউনিয়নে ১৯৩জন, মির্জাপুর ইউনিয়নে ২৮১জন, বিশালপুর ইউনিয়নে ২১৭জন, সুঘাট ইউনিয়নে ১৯৭জন ও সীমবাড়ী ইউনিয়নে ১৮জনকে পরিবর্তন করা হয়েছে। এ ছাড়া ভবানীপুর ইউনিয়ন ও শাহ-বন্দেগী ইউনিয়নে তালিকা প্রস্তুতের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

প্রতিটি ইউনিয়নে ২ জন ডিলারের মাধ্যমে ১ হাজার ২শ জন গরীব অসহায় মানুষকে মাসে ৩০ কেজি চাল প্রদান করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম সরোয়ার জাহান জানান, পুরনো তালিকায় ত্রুটি বিচ্যুতি দেখা দিলে নতুন তালিকা প্রস্তুত হবার পর দ্বিতীয় কিস্তির চাল প্রদান করা হচ্ছে। তারপরেও যদি কেউ অনিয়ম করার চেষ্টা করে তাহলে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবেনা, তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.