রাজশাহীতে ডিবি পরিচয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে কলেজছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’


মঈন উদ্দীন: রাজশাহীতে পুলিশের গোয়ান্দো শাখার (ডিবির) সদস্য পরিচয় দিয়ে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে গ্রাম পুলিশের সদস্যের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী মামলা করার পরই প্রতারক সোহেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রাজশাহীর বাঘা উপজেলার জোতরাঘব গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে সোহেল। ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে সে মাস দুয়েক আগে উত্তর গাওপাড়া এলাকায় কলেজপড়ুয়া এক ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।
ভুয়া কাবিননামায় বিয়ের কথা বলে বেশ কয়েকদিন বাজুবাঘা ইউনিয়ন পরিষদে ওই ছাত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন। পরে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারে ওই ইউনিয়নের একজন চৌকিদার সে। সোমবার দুপুরে ভুক্তভোগী ওই কলেজপড়ুয়া ছাত্রী বাঘা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ভুক্তভোগী মেয়ের নানী বলেন, ‘এরকম তো একটা নয় অনেক মেয়ের সর্বনাশ করতে পারে।’ এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার দাবি করেছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। মামলার পর অভিযান চালিয়ে ওই প্রতারককে গ্রেফতার করে থানা হেফাজতে নেয় পুলিশ।
রাজশাহী বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো নজরুল ইসলাম জানান, বর্তমানে ওই ছাত্রীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

রাজশাহীর মোহনপুরে যৌতুক না পেয়ে
গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২
মঈন উদ্দীন: রাজশাহীর মোহনপুরে যৌতুকের দাবিতে জান্নাতুন ফেরদৌস রিমা (১৫) হত্যার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- গৃহবধূর শ্বাশুড়ি রেনুকা বেগম (৪৫), ননদ শাকিলা অরুনা (২৬)।
জানা গেছে, উপজেলার মৌগাছি পশ্চিমপাড়া গ্রাম থেকে গতকাল সোমবার রাতে গৃহবধূ রিমার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এদিকে, গৃহবধূর পরিবারের দাবি- শ্বশুরবাড়ির লোকেরা যৌতুকের দাবিতে রিমাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করছে। এ ঘটনায় গৃহবধূর বাবা আনারুল ইসলাম বাদী হয়ে রিমার স্বামী, শ্বশুর, শ্বাশুড়ি ও ননদসহ পাঁচজনকে আসামি করে মোহনপুর থানায় হত্যার মামলা করেছেন।
গৃহবধূর পরিবারের অভিযোগ, এক বছর আগে উপজেলার মৌগাছি পশ্চিমপাড়া গ্রামের আহাদ আলীর ছেলে আবির রায়হানের (২৪) সঙ্গে রিমাকে বিয়ে দেন তারা। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে বাবার বাড়ি থকে ৩ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য রিমাকে চাপ দিতে থাকেন স্বামী আবির রায়হান। তবে বহু কষ্টে দেড় লাখ টাকা দিয়েছেন রিমার বাবা-মা।
রিমার বাবা আনারুল ইসলাম বলেন, বাকি দেড় লাখ টাকা যৌতুক দিতে না পারায় আমার মেয়ে রিমাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমি থানায় হত্যার মামলা দায়ের করেছি। মেয়ের হত্যায় জড়িতদের বিচার চাই।
মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ৫ আসামির মধ্যে দুজনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

রাজশাহীতে বিপুল পরিমাণ দেশি
মদসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
মঈন উদ্দীন : রাজশাহী মহানগরীতে ৩৬৭ লিটার দেশি মদসহ মিলন গাজী (৩৪) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৫। এ সময় একটি অটোরিক্সা জব্দ করা হয়। আটক মাদক ব্যবসায়ী নগরীর মতিহার থানাধীন ডাশমারী জাহাজঘাট এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে।
র‌্যাব জানায়, র‌্যাব-৫, রাজশাহীর সিপিএসসি, মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি দল রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানাধীন ডাবতলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মিলন গাজীকে ৩৬৭.৫ লিটার দেশিমদ ও ১ টি অটোরিক্সাসহ আটক করে। আসামীর বিরুদ্ধে রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.