ভারত থেকে বিশ্বকাপের আসর সরিয়ে নিচ্ছে আইসিসি,কর ছাড়ের টাকা না দেয়ায়

এশিয়ানবার্তা : ভারতের গণমাধ্যম টাইমস অফ

ইন্ডিয়া বিসিসিআইয়ের বিশ্বস্ত সূত্রের বরাত দিয়ে বলছে, ট্যাক্সের বিষয়ে সমাধান না আসলে আইসিসি ভারতে আয়োজিত হতে যাওয়া আসন্ন টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে বিশ্বকাপ দুটিই সরিয়ে নেবে। বোর্ড অবশ্য ভারত সরকারকে এই সমস্যা সমাধানের জন্য আবেদন করেছে।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী কোনো দেশে বৈশ্বিক কোনো টুর্নামেন্ট আয়োজন করলে সেখানে কর দেয় না। কিন্তু সরকার যদি কর না ছাড়ে সেটা ওই দেশের বোর্ডকে পরিশোধ করতে হয়। কিন্তু ভারত এটা না করায় ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি এবং ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়ার মর্যাদা হারাতে পারে।

মূল কারণ ২০১৬ বিশ্বকাপের কর পরিশোধ। যেটা ভারত সরকার আইসিসিকে ছাড় দেয়নি। আবার ভারতীয় বোর্ড বিসিসিআই পরিশোধ করেনি। ফলে সেটা শোধ করতে হয়েছে আইসিসিকে। এখন আইসিসি ওই টাকা বিসিসিআইয়ের কাছে দাবি করেছে। ভারতীয় বোর্ড তাতেও সায় দিচ্ছে না। বরং ঝুলিয়ে রেখেছে।

বিষয়টি নিয়ে আইসিসি ও বিসিসিআইয়ের মধ্যে খুব বাজেভাবে ই-মেইল চালাচালি হচ্ছে। এই কারণে সম্পর্কের অবনতিও ঘটেছে দুই পক্ষের মধ্যে। ফলে আইসিসি ও বিসিসিআই বিভিন্ন বিষয়ে একমত হয়ে কাজ করতে পারছে না।

টাকার পরিমাণও কম না। বিসিসিআইর কাছ থেকে কর বাবদ প্রায় ২৩ মিলিয়ন ডলার পাবে আইসিসি। চার বছরেও এই কর না দেয়ায় ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এর সমাধান চাইছে আইসিসি।

করোনা পরিস্থিতির দোহাই দিয়ে আইসিসির সঙ্গে যোগাযোগ করছে না বিসিসিআই। বিষয়টি নিয়ে আইসিসির সাধারণ সম্পাদক জোনাথন হল বিসিসিআইকে একটি মেইল করে। যেখানে বলা হয়েছে, ‘আমরা বিসিসিআইয়ের সঙ্গে ২০.১ ধারায় আয়োজক চুক্তি করতে চাচ্ছি। বিসিসিআইয়ের সঙ্গে আলোচনা মতে ১৮ মে’র আগে পূর্বের বকেয়া ট্যাক্স সমাধান হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেটি এখনও সমাধান হয়নি।

ভারতের গণমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়া বিসিসিআইয়ের বিশ্বস্ত সূত্রের বরাত দিয়ে বলছে, ট্যাক্সের বিষয়ে সমাধান না আসলে আইসিসি ভারতে আয়োজিত হতে যাওয়া আসন্ন টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে বিশ্বকাপ দুটিই সরিয়ে নেবে। বোর্ড অবশ্য ভারত সরকারকে এই সমস্যা সমাধানের জন্য আবেদন করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.