ইতালির প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

02এশিয়ানবার্তা: সংবিধান সংস্কার পরিকল্পনার ওপর গণভোটে শোচনীয় পরাজয় দেখতে পেয়ে পদত্যাগ করেছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মাত্তেও রেনজি।

স্থানীয় সময় রোববার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে পদত্যাগের ঘোষণা দেন রেনজি।

সংবাদ সম্মেলনে পদত্যাগের ঘোষণা দেয়া ইতালির প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি গণভোটের ফল মেনে নিয়েছেন। সংস্কার পরিকল্পনার বিরোধী পক্ষগুলোকে এখন অবশ্যই স্বচ্ছ পরিকল্পনা তৈরি করতে হবে।

ইতালির রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম আরএআইয়ে প্রচারিত গণভোট পরবর্তী জরিপ থেকে জানা যায়, সংবিধান সংস্কারের পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৪২ থেকে ৪৬ শতাংশ ভোটার। অপরদিকে বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ৫৪ থেকে ৫৮ শতাংশ।

গণভোটে হার মেনে নিয়ে রেনজি বলেন, “আমাদের সবার ভাগ্য সুপ্রসন্ন হোক।”

তিনি বলেন, সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে তিনি পদত্যাগের বিষয়টি জানাবেন। এর পর প্রেসিডেন্টের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়ে সরকারপ্রধান হিসেবে আড়াই বছর ধরে পালন করা দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেবেন।

রেনজি বলেন, সাংবিধানিক সংস্কার ইতালিতে আমলাতন্ত্রের দৌরাত্ম্য কমাত। এটি একই সঙ্গে তার দেশকে আরো প্রতিযোগী করত। কিন্তু সেই ভোটই ব্যবহার হলো তার বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রকাশের মাধ্যম হিসেবে।

মাত্তেও রেনজির প্রতি অনাস্থা ভোটে মূল ভূমিকা জনপ্রিয় দলগুলোর। এই গণভোটে সরকারপ্রধানের প্রতি অনাস্থা প্রকাশকে ইউরোপে প্রতিষ্ঠানবিরোধী মনোভাবের নির্দেশক হিসেবে মনে করা হচ্ছে।

ইতালিতে অভিবাসনবিরোধী দল নর্দার্ন লিগের নেতা মাত্তেও সালভিনি বলেন, নির্বাচন পরবর্তী জরিপের ফল সত্য হলে, এই গণভোট হবে ‘বিশ্বের তিন-চতুর্থাংশের দাপুটে শক্তিগুলোর বিরুদ্ধে জনগণের বিজয়’। -সংবাদমাধ্যম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.