নোট বাতিলের টাল বাহানার মধ্যেই ভারতের উপ নির্বাচন

07কলকাতা থেকে গৌতম মালিক: কালো টাকাকে নিধন করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সারা ভারতবর্ষ জুড়ে ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিল করার পর সমগ্র দেশ জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে হাহাকার ও চরম অব্যবস্থা। নিত্য নৈমিত্তিক দুর্ভোগে পড়ছে সাধারণ মানুষ। দোকান-বাজার থেকে হাসপাতাল সমস্ত জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে টাকার অভাব। ব্যাঙ্ক ও ব্যাঙ্কের এটিএম-এ রোজ পড়ছে লম্বা লাইন। নিজের জমানো টাকা তুলতে গেলেও অপেক্ষা করতে হচ্ছে নির্দিষ্ট কিছুদিন বা সময়। তা নাহলে মিলবে না টাকা।

এমত অবস্থায় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্র তথা নরেন্দ্র মোদিকে হুঁশিয়ারি দিয়ে তিন দিনের সময় দিয়ে বলেছেন, জনসাধারণের বিরুদ্ধে এরকমের হঠকারি সিদ্ধান্ত না তুলে নেওয়া হয় তাহলে আগামী দিনে আরও বড় রকম  সমস্যার মুখে পড়বে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নোট বাতিলের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের কলকাতা অফিসে গিয়ে সেখানকার আধিকারিকদে জিজ্ঞাসা করেন, বাংলার জন্য কত নোট দেওয়া হয়েছে ? পরে বলেন, বাংলা একটাও ৫০০ টাকার নোট পায়নি।

008সাধারণ মানুষ ভুগছেন। মানুষ নিজস্ব সেভিংস অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা পাচ্ছেন না। সেভিংস অ্যাকাউন্টের টাকা সুরক্ষিত আছে তো? প্রশ্ন তোলেন তিনি। পরে বলেন, “গোটা দেশ কাঁদছে। চাষিরা কাঁদছে। খাবার যদি না মেলে, মানুষ কি প্লাস্টিক খেয়ে থাকবে? কেন্দ্রকে তাঁর পরামর্শ ১০, ১০০,  ৫০০ টাকার নোট পর্যাপ্ত পরিমাণে চালু রাখা হোক। যে সব গ্রামে ব্যাঙ্ক ও পোস্ট অফিস নেই, তাঁদের খুব অসুবিধা হচ্ছে।

এরপরই মুখ্যমন্ত্রী চলে যান কলকাতার বড়বাজার এলাকায়। ঘুরে দেখেন সেখানকার পরিস্থিতি। কথা বলেন সেখানকার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে। কথা বলেন, আম আদমির সঙ্গেও। মুখ্যমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে তাঁর কাছে অভিযোগ উগরে দেন সাধারণ মানুষ। ”নোট নেই, কাজ বন্ধ” এমন অভিযোগ করতে শোনা যায় তাদের।

09অপরদিকে নোট সমস্যায় জর্জরিত ভারতে শনিবার পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়–, মধ্যপ্রদেশ, অরুনাচলপৃদেশ, ত্রিপুরা ও অসমের চারটি লোকসভা কেন্দ্র ও ১০ টি বিধানসভা কেন্দ্র মিলিয়ে মোট ছয়টি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে উপ নির্বাচন হয়ে গেল। এর মধ্যে ছিল পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার, মেদিনীপুর ও বর্ধমান নিয়ে মেটি তিনটি জেলা।  সেখানেও মানুষ ভোটের লাইনকে উপেক্ষা করে সকাল থেকে জমায়েত হয়েছিল এটিএম-এর লাইনে। সেখানেও পরিস্থিতি ছিল আগে নোট তারপর ভোট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.