কোভিড-১৯ চিকিৎসায় রোবট ‘ক্যাপ্টেন সিতারা বেগম’ তৈরী করেছেন রুয়েটের সাবেক সাত শিক্ষার্থী


মঈন উদ্দীন: কোভিড-১৯ শুরু থেকেই সামনের সারির যোদ্ধা ডাক্তাররা।
আক্রান্তের শংকা সব থেকে বেশি ছিলো ডাক্তারদের। স্বাস্থ্য সুরক্ষা
বিবেচনায় রোবট ‘ক্যাপ্টেন সিতারা বেগম’ তৈরী করেছে রাজশাহী
প্রকৌশল ও প্রয্ধসঢ়;ুিক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সংগঠন
আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স বাংলাদেশ।

সংগঠনের সদস্যরা বলছেন, রোবটটি করোনা রোগীর চিকিৎসায়
চিকিৎসক বা নার্সদের সহকারী হিসেবে কাজ করতে সক্ষম। রোবটের
প্রযুক্তিগত দিক বিশ্বমানের জানিয়ে রুয়েট শিক্ষকরা বলছেন, এটি
মাঠপর্যায়ের কাজে সফলতা দেখাতে পারলে দেশ প্রযুক্তিগত দিক থেকে
আরো একধাপ এগিয়ে যাবে। কোভিআক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে গিয়ে
চিকিৎসক বা নার্সদেরও আক্রান্ত হবার ঝুঁকি থাকে সবচেয়ে বেশি।
তাই ঝুঁকি এড়াতে রোগীর কাছে এবার হাজির হবে ‘রোবট ক্যাপ্টেন
সিতারা বেগম’। আইওটি বেসড রোবটটি করোনা রোগীর কাছে
গিয়ে শরীরের তাপমাত্রা নির্ণয়সহ বিভিন্ন তথ্য গ্রহনে সক্ষম।
পাশাপাশি চিকিৎকের পরামর্শ পৌঁছে দিতে পারে রোগীর কাছে। যার
সবকিছুই নিয়ন্ত্রণ হয় দূর থেকে।
সংগঠনটির সদস্য সাহিদা আফরিন ও কে এম ফাইজাদুল ইসলামের
দাবি, রোবট সিতারা বেগমের কার্যপ্রণালী বিশ্বমানের। তবে এটিকে
আরো উন্নত করার সুযোগ রয়েছে। এটি নিয়ে তাদের কাজও চলছে।
সম্প্রতি এটি ক্লিনিক্যালি ট্রায়ালে যাবে।
রুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম সেখ মনে করছেন,
রোবটটি মাঠপর্যায়ের পরীক্ষায় সফল হলে এই আবিস্কার দেশের তথ্য
প্রযুক্তিকে আরো একধাপ এগিয়ে নিবে যাবে। তবে কিছু পরিবর্তন
দরকার যা তারা করতে সফল হয়েছে। আমি বিশ^াস করি এটি বাস্তব ক্ষেত্রে
সফল ভূমিকা রাখবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.