গাইবান্ধায় শিক্ষার্থীদের কাঁধে অতিরিক্ত বইয়ের বোঝা (গাইবান্ধার সংবাদ)

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ সরকার বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ করলেও গাইবান্ধায় অভিভাবকদের অতিরিক্ত বই কিনতে বাধ্য করছে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। এ ব্যাপারে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা থাকলেও তা অমান্য করে শিশুদের কাঁধে চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে অতিরিক্ত বইয়ের বোঝা।
সারাদেশের ন্যায় গাইবান্ধায়ও বছরের প্রথম দিন বিনামূল্যে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাতে সরকার বিনামূল্যে নতুন বই তুলে দিলেও বাড়তি বই কিনতে বাধ্য হচ্ছে অভিভাবকরা। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের নির্ধারিত বই ছাড়াও অভিভাবকদের হাতে বাড়তি বইয়ের তালিকা তুলে দিচ্ছে বেসরকারি স্কুলগুলো। ফলে বাধ্য হয়ে শহরের বইয়ের দোকানগুলোতে ভিড় করছেন অভিভাবকরা। এতে স্বল্প আয়ের অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের অতিরিক্ত বই কিনতে হিমশিম খাচ্ছে।
এক শিশু শিক্ষার্থী জানায়, তার তৃতীয় শ্রেণিতে বোর্ডের বই রয়েছে ৬টি এবং ড্রয়িং বইসহ আরও পাঁচটি। সব মিলিয়ে তার ব্যাগের ওজন ছয় থেকে সাত কেজি।’অভিভাবকরা জানান, ‘বিদ্যালয় থেকে কিছু বইয়ে লিস্ট দেয়া হয়েছে, যেগুলো ঢাকার নীলক্ষেতে বিক্রি হয় ২০-২৫ টাকায়। অথচ গাইবান্ধার বিভিন্ন লাইব্রেরীতে বিক্রি হচ্ছে ২শ’ থেকে ৩শ’ টাকা। স্কুল কর্তৃপক্ষ বইয়ের দোকান থেকে সেট প্রতি কমিশন নিয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বইয়ের লিস্ট দিয়েছে। তবে বই বিক্রেতারা জানায়, সংশি¬ষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আর প্রকাশনীগুলো যোগসাজস করে পাঠ্যসূচিতে অতিরিক্ত বই যুক্ত করেছে। তাই তারা ওইসব বই বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে।
গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ বলেন, শিক্ষার্থীদের উপর বাড়তি বইয়ে বোঝা যদিও সরকার এইটা নিষিদ্ধ করেছে। তবে এর উপর নজরাদারি অব্যাহত রাখলে এটা বন্ধ হবে।’
শিশুদের বইয়ের বোঝা হালকা করতে অতিরিক্ত বই না দেয়ার জন্য উচ্চ আদালতের নির্দেশের পাশাপাশি পরিপত্র জারি করে শিক্ষা অধিদপ্তর। গাইবান্ধা পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন বলেন, ‘সরকারি নীতি বাইরে কোনো কিন্ডারগার্ডেন বা কোন প্রতিষ্ঠান অতিরিক্ত বইয়ের লিস্ট দিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গাইবান্ধা জেলায় সরকারিভাবে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৩ লাখ ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে ৪৪ লাখ বই তুলে দেয়া হয়। তবে শিক্ষা বিভাগের কাছে জেলায় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোন তথ্য নেই বলে জানা গেছে। ছবি সংযুক্ত

গাইবান্ধায় পৌর কর্মচারীদের এক দফা দাবিতে দুই দিনের পূর্ণদিবস কর্ম বিরতি শুরু

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ এক দফা দাবিতে পৌর কর্মচারীদের দুই দিনের পূর্ণদিবস কর্ম বিরতি সোমবার গাইবান্ধার তিনটি পৌরসভায় শুরু হয়েছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ৯টা থেকে গাইবান্ধা, সুন্দরগঞ্জ ও গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভায় এই কর্ম বিরতি চলছে। পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারিরা চাকরি জাতীয়করণের এক দফা দাবিতে এই কর্মসূচির আয়োজন করে।
পৌর কর্মচারীরা দাপ্তরিক কাজ ফেলে রেখে পৌর চত্ত্বরে অবস্থান নেয়। ফলে বন্ধ হয়ে যায় পৌর নাগরিকদের সকল সেবা। এতে বিপাকে পড়ে পৌরবাসী।
গাইবান্ধা পৌর কর্মচারী সংসদের সভাপতি অমিতাভ চক্রবর্তী রিন্টুর সভাপতিত্বে দুই দিনের পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালনের প্রথম দিনের সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-প্রচার সম্পাদক বিপুল কুমার সাহা, গাইবান্ধা পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নজরুল ইসলাম, সম্পাদক মিলন কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম,পৌর কর্মচারী সংসদের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক সূচনা সরকার, কোষাধ্যক্ষ হাফিজুর রহমান, সদস্য আতিয়ার রহমান, মওলা মিয়া, সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম, আব্দুল আহাদ, সম্পাদক নূর হোসেন, আব্দুর রহিম আকন্দ, যুধিষ্ঠির চন্দ্র সরকার প্রমুখ।
বক্তারা অবিলম্বে দেশের ৩২৭টি পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীদের এক দফা দাবি মেনে নিয়ে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন ভাতা প্রদানের আহবান জানান।

গাইবান্ধার পুরাতন বাজারের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে এলাকা

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা জেলার ঐতিহ্যবাহী পুরাতন বাজার কমিটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন জমে উঠেছে। কনকনে শীত আর হিমেল হাওয়াকে উপেক্ষা করে নাওয়া-খাওয়া ছেড়ে ভোট প্রার্থনা করছেন প্রার্থীরা। পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে বাজার ও আশেপাশের এলাকা।
জানা গেছে, আগামী ২০শে জানুয়ারী শনিবার পুরাতন বাজার কার্যনির্বাহী কমিটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ কার্যকরি কমিটির ১২টি পদে ৪৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রার্থীরা হলেন- সভাপতি জহুরুল ইসলাম রঞ্জু, ফোরকান হক্কানী, মো. সেকেন্দার আলী, আলহাজ্ব মো. সুরুজ্জামান, সহ-সভাপতি আতাউর রহমান, মো. আমিনুল ইসলাম, রেজাউল করিম, রফিকুল ইসলাম লুলু, সাধারণ স¤পাদক মো. আরিফ মিয়া রিজু, ওমর ফারুক রুবেল, সহ-সাধারণ স¤পাদক শেখ ইব্রাহিম হক্কানী হিরু, মো. ফরিদুল ইসলাম ফরিদ, মাহফুজ আলম, সাংগঠনিক স¤পাদক মো. রোস্তম আলী, মো. সাইফুল ইসলাম, মো. লুদ হক্কানী, অর্থ স¤পাদক মো. এমদাদুল হক, মো. মঞ্জু মিয়া, আইন বিচার ও শালিস বিষয়ক সম্পাদক মো. আইয়ুব আলী, মো. খয়বর হোসেন ভুটটু, মো. শাহনুর আলম, দপ্তর স¤পাদক আমিনুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক স¤পাদক ইসমাইল হোসেন দুখু, মো. রুবেল মিয়া, মো. রুহুল আমিন আকন্দ, ধর্ম পরিবেশ ও শৃংখলা বিষয়ক সম্পাদক ফয়সাল হোসেন ফিরোজ, রবিউল ইসলাম রবি, লাইজু মিয়া, শাহজামাল, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শ্রী সুজন ঘোষ, মো. শফিকুল ইসলাম শফি, কার্যনির্বাহী সদস্য আরজু মিয়া, ইব্রাহিম আলম আকন্দ, গৌড় চন্দ্র দাস, শ্রী নন্দসাহা, নুর মোহাম্মদ, মাইদুল হক, মতিন ফকির, মতলুবর রহমান, রবিউল ইসলাম রনি, সাইদুর রহমান, সাধন চন্দ্র দাস, সাহেদ হোসেন ইসমাইল, লাল মিয়া।

গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কার্যনির্বাহী কমিটির কর্মকর্তাদের শুভেচ্ছা

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত সভাপতি কেএম রেজাউল হক, সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবুসহ কার্যনির্বাহী কমিটির সকল কর্মকর্তাকে সোমবার প্রেসক্লাবে অভিনন্দন জানান দৈনিক আমাদের সময়-এর গাইবান্ধা জেলার প্রতিনিধিরা।
আমাদের সময়-এর গাইবান্ধা প্রতিনিধি খায়রুল ইসলাম, সুন্দরগঞ্জ প্রতিনিধি রেদওয়ানুর রহমান, সাঘাটা প্রতিনিধি মিজানুর রহমান রাঙ্গা, গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি মাহমুদ খান গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে এসে নবনির্বাচিত সভাপতি ও সম্পাদকের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে প্রেসক্লাবের কর্মকর্তাদের শুভেচ্ছা জানান। তারা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের হাতে পত্রিকার ডেস্ক ক্যালেন্ডার তুলে দেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক উত্তম সরকার এবং রজতকান্তি বর্মন, শেখ হুমায়ুন হক্কানী ও আবু কায়সার শিপলু।

গাইবান্ধায় দরিদ্র শীতার্ত মানুষের মধ্যে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কম্বল বিতরণ

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি গাইবান্ধা ইউনিটের উদ্যোগে দরিদ্র শীতার্ত অসহায় মানুষের মধ্যে সোমবার নিজস্ব কার্যালয় থেকে ৪শ’ কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। কম্বল বিতরণ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি গাইবান্ধা ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, নির্বাহী সদস্য সুলতানা ইসলাম ডলি প্রমুখ। এর আগে রেড ক্রিসেন্টের পক্ষ থেকে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ৬ হাজার ১০টি পরিবারকে নগদ ৪ হাজার টাকা ও ১ প্যাকেট ৮ প্রকারের সবজি বীজ এবং ৪৮৩টি পরিবারকে ২ বান্ডিল করে রঙ্গিন ঢেউটিন বিতরণ করা হয়। এ কর্মসূচীর আওতায় আরও ৪শ’ পরিবারকে আগামী সপ্তাহে ৪ হাজার টাকা ও এক প্যাকেট করে সবজী বীজ বিতরণ করা হবে।

গাইবান্ধায় আলোচনা ও দোয়া মাহফিল

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. আর.এ গণির ২য় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সোমবার গাইবান্ধা জেলা বিএনপির উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মইনুল হাসান সাদিক, সাবেক এমপি সাইফুল আলম সাজা, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুন্নবী টিটুল, শহর বিএনপির সভাপতি শহিদুজ্জামান শহীদ, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরকার, জেলা কৃষকদলের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান সেলিম, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি কাজী আমিরুল ইসলাম ফকু, খন্দকার ওমর ফারুক সেলু, আব্দুস ছালাম, মোস্তাক আহমেদ, আনারুল হক, আব্দুর রাজ্জাক ভুটটু, এসএম কামাল হোসেন, আব্দুল হাই, শফিকুর রহমান খোকা, আতাউর রহমান, ফেরদৌস আলম লিটন, শাহেদ হোসেন, শেখ নজরুল ইসলাম, মাসুদ রানা, আলতাফ হোসেন খান মামুন, শাহিনুর রহমান শাহীন, শেখ মাসুদ, নুর ইসলাম প্রমুখ। দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা মো. ইউনুস আলী খান।

সুন্দরগঞ্জে ভ্রাম্যমান ২ পতিতা আটক

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার রামজীবন ইউনিয়নের দক্ষিণ বেকাটারী গ্রামের একটি বসত বাড়ি থেকে ভ্রাম্যমান ২ পতিতাকে আটকের পর মাথার চুল কেঁটে ছেড়ে দিয়েছেন স্থানীয়রা।
জানা যায়, সোমাবার বিকেলে স্থানীয়রা ঐ গ্রামের মৃত কোব্বাস আলীর পুত্র আবুল কালাম আজাদের বসতঃ বাড়িতে অসামাজিক কার্যকলাপ চালানোর সময় স্থানীয়রা ভ্রাম্যমান ভাড়াটে ২ পতিতাকে আটক করেন। এসময় ৩ খদ্দরসহ বাড়ির মালিকা আবুল কালাম আজাদ পালিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে আবুল কালাম আজাদ গা ঢাকা দিয়েছে। এব্যাপরে মোবাইল ফোণে কথা হলে, আবুল কালাম আজাদ বলেন, ঐ ২ মেয়ের মধ্যে একজনের নাম শাহানা অপরজনের নাম জুঁই আক্তার। বিচারের পর তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ইউপি সদস্য- আবু বকর সিদ্দিক জানান, দীর্ঘদিন থেকে আবুল কালাম নিজ বাড়িকে মিনি পতিতালয়ে পরিণত করে বিভিন্ন স্থান থেকে ভ্রাম্যমান পতিতাদের নিয়ে এসে অসামাজিক কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে। বিচারের সময় আটক পতিতাদের অনুরোধে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.