হারিয়ে যাচ্ছে খেজুর গাছ: আদমদীঘিতে হাত বাড়ালেই আর মিলেনা মধুরস

 


গোলাম মোস্তফা আদমদীঘি (বগুড়া) : প্রকৃতির বিরুপ খেয়ালে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলায় দিনদিন হারিয়ে যাচ্ছে খেজুর গাছ। আগের মত এখন আর হাত বাড়ালেই মিলেনা মধুরস। নেই আর গাছিদের আনাগোনা, শীতের সকালে কাউকে রৌদে বসে মনের আনন্দে মুড়ি দিয়ে খেজুর রস খেতে দেখা যায়না। এভাবে চলতে থাকলে হয়তো একদিন মানুষ ভুলেই যাবে সুস্বাদু খেজুর রস খাওয়ার আনন্দ।
দেশে ঢাকঢোল পিটিয়ে বিভিন্ন প্রকার ফলজ ও বনজ বৃক্ষ রোপন রোপন করা হয়। সম্প্রতি হারিয়ে যেতে বসায় আবারও ঢাকঢোল পিটিয়ে তালগাছ রোপন করার কর্মসুচী গ্রহন করা হচ্ছে। এতে সারাদেশের ন্যায় আদমদীঘি উপজেলার বিভিন্ন সড়কে লক্ষ লক্ষ তালগাছ বোপন করা হয়, কিন্তু খেজুর গাছ রোপনের কোন উদ্যোগ নেই। ১০ বছর পূর্বেও প্রতিটি গ্রামে বিপুল খেজুর গাছ ছিল। সে সময় দল বেঁধে গাছিয়ারা গ্রামে এসে আস্তানা গড়ে তুলছিল। খেজুর গাছ লিজ নিয়ে রস নামানোর কাজ এবং খেজুর রস, লালি ও পাটালি গুড় তৈরী করে গ্রামে গ্রামে ফেরি করে বিক্রি করতেন। গাছিয়াদের তৈরী পাতলা লালি দিয়ে মুরি, রুটি, ফুরফুরি, ভাপা পিঠা, দুধভাত কিংবা গরম ভাত খাওয়ার মজাই আলাদা। বর্তমানে আগের মতো আর গ্রামগঞ্জে খেজুর গাছ দেখা যায়না। এখন আর হাত বাড়ালেই মিলেনা খেজুর রস। খেজুর গাছ শুধু রসই দেয়না তার ফল ভিটামিন যুক্ত খাবার, কাঠ জ্বালানি ও সাংসারিক গৃহস্থলি কাজেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে। গ্রামগঞ্জে অযতœ আর অবহেলায় বেড়ে উঠা খেজুর গাছ গুলো মাঝে মধ্যে নজরে পড়লেও নেই সেই গুলোর যৌলুশ। এখন কেউ আর নতুন করে খেজুর গাছ লাগানোর উদ্যোগই নেয়না। ফলে কালের আবর্তে আজ হারিয়ে যেতে বসেছে এই খেজুর গাছ। খেজুর রস যেন বিরল হয়ে দাঁড়িয়েছে অত্র উপজেলাবাসির। হয়তো নতুন প্রজন্মের অনেকেই খেজুর রসের কি স্বাদ তা জানেনই না। এখনই গ্রামগঞ্জের বিভিন্ন সড়কে খেজুর গাছ লাগানোর ব্যবস্থা নেয়া না হলে হয়তো একদিন খেজুর গাছ বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

সান্তাহারে মারপিট ও টাকা ছিনিয়ে নেয়া ঘটনায় ৩জনের বিরুদ্ধে মামলা

আদমদীঘি (বগুড়া) সংবাদদাতা : সান্তাহার সরকারি কলেজে সূবর্ন জয়ন্তী উৎবস থেকে ফেরার পথে শামিম আকতার নামের এক যুবককে মারপিটে জখম ও তার নিকট থেকে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়া ঘটনায় তিনজনকে আসামী করে মামলা হয়েছে। গত গত বুধবার সান্তাহার স্টেশান কলোনীর ইকবাল হোসেনের ছেলে শামিম আকতার নিজেই বাদি হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। মামলায় এজাহারভুক্ত আসামীরা হলো সান্তাহার স্টেশান কলোনীর আলাউদ্দিন ঢালীর ছেলে রুহুল আমিন ঢালী (৩৫), চা-বাগান এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে সোহেল (৩৫) ও পোওতা গ্রামের মোহাম্মাদ আলীর ছেলে পল্টু (৩৬)।
মামলার বিবরনে জানাযায়, গত ২২ ডিসেম্বর সান্তাহার সরকারি কলেজে সূবর্ন জয়ন্তী উৎসব পালন অনুষ্ঠান শেষে বাদি শামিম আকতার মোটরসাইকেল যোগে রাত সাড়ে ১১টায় তার বাসায় ফেরার পথে রেলওয়ে পি ডাবলু আই অফিসের নিকট ইট বিছানো রাস্তায় তার পথরোধ করে আসামীরাসহ আর বেশ কয়েকজন মিলে পূর্বশক্রতার জের ধরে শামিম আকতারকে বেদম মারপিটে জখম করে তার পকেটে থাকা ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে আহত শামিম আকতারকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে পুলিশ জানায়।

আদমদীঘি আইপিজে বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পালনের দ্বিতীয় দিনে শোভাযাত্রা

আদমদীঘি (বগুড়া) সংবাদদাতা : আদমদীঘি আইপিজে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পালনের দ্বিতীয় দিন গতকাল শুক্রবার স্কুল মাঠে প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতিতে মিলন মেলায় পরিণত হয়। ছাত্রছাত্রীদের অংশ গ্রহনে বেলা ১১টায় বাদ্যের তালে তালে এক বর্ণাঢ্য শোভা যাত্রা সদরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিন করে। দুপুরে প্রীতিভোজ শেষে মনোঞ্জ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের স্মৃতিচারণমূলক আলোচনা সভা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনজু আরা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ড, ওসমান গনি। এছাড়াও প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীগন বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.