বগুড়ার মোকামতলায় গৃহবধুর পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন

 

 

SAMSUNG CAMERA PICTURES

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলায় ২ সন্তানসহ গৃহবধুকে তাড়িয়ে দিয়ে বাড়ি তালাবদ্ধ করার অভিযোগে পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন করেছে বুুলু মিয়া। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, পৌরসভার বেড়াবালা গরীবপুর গ্রামে মৃতঃ গোফ্ফার আলীর পুত্র শহিদুল ইসলাম দীর্ঘ দিন যাবৎ মাদক ও জুয়ার ব্যবসা করে আসছিল। এতে একই গ্রামের আজিম উদ্দিন ও তার ভাই ফজলার রহমান মাদক ব্যবসা করতে বাধা প্রদান করে।

এতে মাদক ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম তাহাদের উপর অতান্ত ক্ষিপ্ত হওয়ায় এবং তাদের ক্ষতি সাধনের জন্য এক পরিকল্পনা করে। এরি ধারাবাহিকতায় গত ১৩ অক্টোবর শহিদুল ইসলাম তার সঙ্গীয় হোসেন্ আলীর পুত্র এনামুল হক (৪২), সামছুল প্রামানিকের পুত্র ইমরান আলী (২০), আসাতুল্লার পুত্র ছামছুল হক (৪৫)  ফজলার রহমানের নীজ দখলীয় জমি জোর পূর্বক ভাবে দখল করতে যায়।

এতে আমি বাঁধা দিতে আসলে আমাকেও ধারালো অস্ত্র দ্বারা কোপাতে থাকে। এতে আমার সম্মুখভাগ বাম কপাল হতে, নাকের নিচ ও কপাল পর্যন্ত লাগিয়া কপাল চক্ষু ও নাকের হাড় কাটিয়া গুরুত্ব অবস্থায় আহত হয়। আমাকে রক্ষা করার জন্য এগিয়ে আসলে আজিম উদ্দিনের পুত্র বেলাল হোসেন বুলু মিয়ার স্ত্রী মমতাজ বেগম, এবং তার মেয়ে নুসরাত জাহান রত-কে মারপিট করে এতে তারাও আহত হয়। পরে গুরুত্ব আহত অবস্থায় ফজলার রহমান ও আমাকে জরুরী ভিত্তিতে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল হাসপাতেল ভর্তি করা হয়।

পরে আমি হাসপাতালে থাকা অবস্থায় আমার জামায় খাজা মিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালত-২ এ একটি মামলা করে। আসামীগণ মামলার হাজিরা দিতে গেলে শহিদুল ইসলাম ও এমরানকে পুলিশ জেলহাজতে প্রেরণ করে। জেলে থাকাবস্থায় জামিন পাওয়ার জন্য শহিদুল তার স্ত্রী নাজমার মাধ্যমে বাড়িঘর ভাঙচুর ও তালা লাগিয়ে দেওয়ার মিথ্যা অভিযোগ থানায় দাখিল করে। যদিও পুলিশী তদন্তে তার কোনরূপ সত্যতা পাওয়া যায়নি। মামলার ভয়ে শহিদুল ও শহিদুলের স্ত্রী দীর্ঘদিন যাবত আসবাবপত্র সরিয়ে নিয়ে তালা লাগিয়ে রাতের আধারে পালিয়ে যায়।

ব্যাপারডা আমি আমাদের কমিশনারকে অবগত করি। শহিদুল বিভিন্ন ভাবে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য সাংবাদিকদের ভুল বুঝিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশন করেছে। আমি এর তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি, সেই সাথে ভবিষ্যতে এরকম মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনে সাংবাদিকদের বিরত থাকার অনুরোধ করছি। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রশিদ, আব্দুল জলিল, মনি মুন্সি, ফজলার রহমান প্রমূখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.