দর্শনা কেরু এন্ড কোম্পানী চিনিকলে আখ মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধন

06চুয়াডাঙ্গা থেকে মিরাজুল ইসলাম: চুয়াডাঙ্গার দর্শনা কেরু এন্ড কোম্পানী চিনিকলে ২০১৬-২০১৭ মৌসুমের আখ মাড়াই উদ্বোধন করা হয়েছে। আখ মাড়াই উদ্বোধন উপলক্ষে সোমবার বেলা ১১টায় চিনিকলের কেন কেরিয়ার প্রাঙ্গনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এরপর চিনিকলের ডোঙ্গায় আখ ফেলে মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান একেএম.দেলোয়ার হোসেন এফসিএমএ।

মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধনী সভায় সভাপতিত্ব ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গার দর্শনা কেরু এন্ড কোম্পানী চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ.বি.এম.আরশাদ হোসেন। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করর্পোরেশনের চেয়ারম্যান এ.কে.এম.দেলোয়ার হোসেন এফসিএমএ। বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মনজু, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করর্পোরেশনের পরিচালক সিডিআর ও হাবিবুর রহমান, মোবারকগঞ্জ চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন ।

সভায় উপস্থিত থেকে আরো বক্তব্য রাখেন দর্শনা কেরু এ্যান্ড কোম্পানী চিনিকল শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ তৈয়ব আলী ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি আখচাষীদের উদ্দেশ্যে বলেন “ কৃষি বিভাগের পরামর্শ নিয়ে আখচাষ করতে হবে। তাদের পরামর্শে আখচাষ করলে আখের উৎপাদন ও চিনি আহরন ভাল হবে। তিনি বলেন, আখের দাম কিছুটা বাড়ানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আরো বাড়ানো যাবে যদি কিনা আখচাষীরা আরো বেশি করে আখচাষ করেন। চিনিকলে ভাল আখ মাড়াই হলে ভাল চিনি উৎপাদন হবে। তিনি বলেন, কেরু এ্যান্ড কোম্পানী চিনিকলে বিএমআরই শেষ হয়েছে। এবার এই চিনিকলের ডিষ্ট্রিলারী আধুনিকায়ন করা হবে। তিনি বলেন, কেরু এ্যান্ড কোম্পানী চিনিকল একটি চমৎকার গর্বের প্রতিষ্ঠান।

এ প্রতিষ্ঠানকে আমাদের বাঁচিয়ে রাখতে হবে”। এছাড়া মিলের প্রতিটি শ্রমিককে আখচাষ করতে হবে, নইলে বেতন পাবেননা বলে হুশিয়ারী উচ্চারন করেন তিনি।

এবারের আখ মাড়াই মৌসুমে ১”শ মাড়াই দিবসে ১লাখ ১০ হাজার মেট্রিক টন আখ মাড়াই করে ৮ হাজার ২’শ ৫০ মেট্রিক টন চিনি উৎপাদনের লক্ষমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে, চিনি আহরনের হার ধরা হয়েছে সাড়ে ৭ ভাগ।  অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে এলাকায় সর্বোচ্চ ১৪.৫০ একর জমিতে আখ চাষের জন্য সদর উপজেলার আকন্দবাড়িয়ার আখচাষী আবুল বাশার পাপ্পু ও সর্বোচ্চ একর প্রতি ৪৪ মেট্রিক টন আখ উৎপাদন করায়  জীবননগর উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের আখচাষী আজিজুল হক ডাবলুকে ক্রেষ্ট ও সম্মাননা প্রদান করা হয়।

 

আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল শেষে চিনিকলের ডোঙ্গায় আখ ফেলে মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করর্পোরেশনের চেয়ারম্যান এ.কে.এম.দেলোয়ার হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.