বগুড়ায় সাংবাদিক পরিচয়ে ক্লিনিকে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে ২জন আটক : ৫ জনের পলায়ন

00000স্টাফ রিপোর্টার: বগুড়ায় সাংবাদিক পরিচয়ে একটি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে পুলিশের হাতে তারেক ও হাসান আজিজ নামে ২জন আটক হয়েছেন। তাদের সঙ্গে থাকা অপর ৫জন পালিয়ে গেছেন।

এঞ্জেল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ম্যানেজার রফিকুর ইসলাম জানান,গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় তিনটি মোটরসাইকেল যোগে ৭জন লোক সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বগুড়া খান্দার এলাকায় কারমাইকেল রোডের এ্যঞ্জেল ডায়াগনস্টিক সেন্টারে হানা দেয়। এসময় সেখানকার কর্মচারীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ভেতরে গিয়ে এলোপাথাড়ি ছবি তুলতে থাকে।এরপর তারা ক্লিনিকের কাগজপত্র জমা দিতে বলে।

এসময় আমি তাদের কাছে জানতে চাই তারা কী কারনে সেখানে এসেছেন। আগতরা নিজেদের “সময় সংবাদ” এর সাংবাদিক পরিচয়ে ম্যানেজারকে ধমকাতে থাকেন। তারা বগুড়ার সব ক্লিনিকেই অভিযান চালানোর জন্য প্রশাসনকে অবগত করে এসেছেন বলে জানান। তাদের কথায় রাজি না হলে পুলিশ প্রশানকে এনে সবাইকে ধরে নিয়ে যাওয়ারও হুমকী দেন।

তাদের কথা শুনে একপর্যায়ে ম্যানেজার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সকল কাগজপত্রের ফটোকপি তাদের হাতে দিলে তারা বলেন, ক্লিনিক রক্ষা করতে হলে টাকা দিতে হবে। তা না হলে রিপোর্ট করে দেব। ম্যানেজার তাদের প্রস্তাবে রাজি না হলে তারা ক্লিনিক বন্ধ করে দেয়ার হুমকী দিয়ে সেখান থেকে চলে যায় ।

এঘটনার ঘন্টা খানেক পর সাংবাদিক হাসান পরিচয় দিয়ে ০১৭৬৮১ ১৯১৯৮৪ নম্বর মোবাইল থেকে ফোন করে ঐ ম্যানেজারকে তাদের সঙ্গে দেখা করতে বলেন। পরে ম্যানেজার বিষয়টি পরিচিত একজন সাংবাদিককে জানালে তিনি সময় সংবাদের বগুড়া জেলা প্রতিনিধিকে বিষয়টি জানান। সাংবাদিক পরিচয়দানকারীদের মোবাইল নম্বরের সুত্র ধরে স্থানীয় সাংবাদিকরা তাদের পরিচয় নিতে গেলে সেখান থেকে ৫জন দৌড়ে পালিয়ে যায় । তখন বাঁকী দুইজনকে ধরে সাংবাদিকরা পুলিশে শোপর্দ করেন।

আটককৃত হাসান ও তারেক আজিজ জানান, তারা এর আগে খান্দারের মা ক্লিনিকে একইভাবে অভিযান চালিয়েছেন। তাদের সম্পাদক বগুড়ার ক্লিনিকগুলোতে এধরনের অভিযান চালানোর জন্য পাঠিয়েছেন।

পরে এঞ্জেল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম সাংবাদিক পরিচয়ে হুমকী দানকারীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেন। আটককৃতরা থানা হাজতে রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.