গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে বাড়ীঘরে হামলা

10গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) থেকে নূর আলম আকন্দ: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার তালুককানুপুর ইউনিয়নের নোদাপুরে এই লোমহর্ষক ঘটনা ঘটেছে।
জানা গেছে, গত প্রায় ১ মাস পূর্বে নোদাপুর লীলকণ্ঠ মাজারে বসে জুয়া খেলা ও গাজার আসর সেই সঙ্গে চলতে থাকে ঢোল বাজনার উৎসব। ফলে পার্শ্ববর্তী বাড়ীর লোকজনের নামাজপড়া ও ঘুমের ব্যঘাত ঘটে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঐ গ্রামের আঃ কুদ্দুস এর পুত্র আজাদুল ইসলাম জুয়া নেশা ও ঢোল বাজাতে নিষেধ করায় গভীর রাতে নওয়াব আলীর পুত্র কালামের নেতৃত্বে আজাদুলের বাড়ী ঘরে হামলা চালানো হয়।

পরদিন গ্রাম্য মাতব্বরগণ ঘটনাটিকে মিমাংসার চেষ্টা করে। এরই জের ধরে  বৃহস্পতিবার ১০ নভেম্বর সকাল আটটায় আঃ কুদ্দুস (৫৬) বড় দাড়ি ওয়ালা তালুককানুপুর বাজার থেকে বাড়ী ফেরার পথে মাসুদ ও জুয়েল মিয়ার বাড়ীর নিকট পৌছিলে তারা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আব্দুল কুদ্দুসকে ঘেরাও করে ধরে জোর পূর্বক তার মুখের দাড়ি ছিড়ে ও কাটিয়া ফেলে বলে অভিযোগ করেন।

কুদ্দুস ও এলাকাবাসীর দাবী মাজারের নামে জুয়া নেশা ও ঢাকঢোল বন্ধে জুয়েল কালাম ও মাসুদকে গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন। এ ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় এজাহার দিয়েছেন। প্রকাশ থাকে যে, জলিলের পুত্র জুয়েল মিয়া বিএনপির ক্যাডার ও ডোমরগাছা সিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক। আঃ কুদ্দুস ও এলাকাবাসী জানায় এরা তিন ভাইদের মধ্যে একজন আওয়ামীলীগ নেতা ও অপর দুজন বিএনপির নেতা। আঃ কুদ্দুস আওয়ামীলীগ এ ভোট দেন বলেও প্রতিবেদককে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.