আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের নেতৃত্বে গাইবান্ধায় সাঁওতাল পল্লী পরিদর্শন

07গাইবান্ধা থেকে ফারুক হোসেন: ঢাকা থেকে বুধবার দুপুরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, অর্থ ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক টিপু মুন্সী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, কেন্দ্রীয় সদস্য রেমন্ড আরেং এবং উম্মে কুলসুম স্মৃতি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ

সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারের জমি থেকে উচ্ছেদ হওয়া ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাঁওতাল পরিবারের সদস্যদের খোঁজ খবর নিতে মাদারপুর গ্রাম পরিদর্শন করেছেন।
এসময় গত ৬ নভেম্বর সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারের উচ্ছেদ হওয়া এলাকা ঘুরে দেখেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত সাঁওতাল আদিবাসীদের সাথে মতবিনিময় করেন। প্রতিনিধি দলের সামনে সাঁওতাল আদিবাসীরা ওই দিনের ঘটনার বর্ণনা দেন।

এসময় আ’লীগের পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দলটি আদিবাসীদের উদ্যোশে বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার পরিবারকে হারিয়েছে। তাই তিনি আপনাদের দু:খ কষ্ট বুঝেই আমাদের পাঠিয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত সাঁওতাল আদিবাসীদের পূণর্বাসনে সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করবে বলে আশ্বাস দেন। এর আগে সকাল ১১টায় হিন্দু বৌদ্ধ, খিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ডা: নীম চন্দ্র ভৌমিক ও ন্যাপ ঐক্যর কেন্দ্রীয় সভাপতি পংকজ ভট্ট্রচার্য এর নেতৃত্বে পৃথক পৃথক ভাবে ওই ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন।

এসময় তারা ক্ষতিগ্রস্তদের নিরাপত্তা, শিক্ষা, চিকিৎসাসহ সব ধরণের পূর্ণর্বাসন ও এ ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের তদন্ত টিমের মাধ্যমে চিহ্নিত করে শাস্তির দাবি জানান।

গত ১লা জুলাই রংপুর সুগার মিলের সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারে জমিতে মাদারপুর ও জয়পুর পাড়ার সাঁওতাল পল্লীতে বাসকারী ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সাঁওতালরা ডেরা ঘর উঠিয়ে বসবাস শুরু করলে গত ৬ নভেম্বর র‌্যাপ পুলিশের সহায়তায় স্থানীয় প্রশাসন তাদের উচ্ছেদ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.