বগুড়ার শেরপুরে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৫ পুলিশসহ নিহত ৭: আহত ৪

0001আব্দুল খালেক নান্নু/ আব্দুল ওয়াদুদ: ঢাকা বগুড়া মহাসড়কের বগুড়ার শেরপুর উপজেলার মহিপুরে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৬ পুলিশ সদস্য সহ ৭ জন নিহত ও ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদেরকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে এক পুলিশ সদস্যের অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে।

১৩ নভেম্বর রবিবার রাত ১ টা ১০ মিনিটে এই দূর্ঘটনা ঘটে বলে ফায়ার সার্ভিস অফিসার সোহেল রানা নিশ্চিত করেন।  বগুড়ার হাইওয়ে পুলিশের এস আই  আশরাফুজ্জামান জানান, কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ বাংলাদেশ পুলিশ টেলিকমের মালামাল নিয়ে একটি ট্রাকে (যার নং খুলনা মেট্রো-ঊ১১-০০৯২) লোড দিয়ে ঢাকা যাওয়ার পথে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের মহিপুর বাজার এলাকায় পৌছলে বিপরিত দিক থেকে আসা একটি সার বোঝাই ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো-ট-১৪-৪৭৪৫) মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। ফলে দুটি ট্রাকের সামনের অংশ একেবারেই দুমড়ে মুচড়ে যায়।

03এ সময় পুলিশ বহনকৃত ট্রাকের ভিতরে অবস্থান করা পুলিশ সদস্য শাজাহান (কং/১৯০),আলমগীর হোসেন (কং/৯১৩), সামছুল হক (বেতার কং/৯০৪) ও ট্রাকের চালক আব্দুস সাত্তার ঘটনাস্থলেই মারা যায়। এ সময় ফায়ার সার্ভিসের লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় এসআই ময়নুল ইসলাম, প্রনব রায় (কং/৭৪৯), মনোয়ার হোসেন (বেতার কং/৩৭৭), সোহেল রানা (বেতার কং/১৪০৪), ও ঝাড়ুদার শ্যামল চন্দ্র দাস কে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

001হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক সোহেল রানা, প্রনব রায় ও শ্যামল চন্দ্র দাসকে মৃত ঘোষনা করেন। পরে এসআই ময়নুল ইসলামের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। অপরদিকে দুর্ঘটনা কবলিত অপর ট্রাকের চালক ও হেলপারকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে আটক দেখিয়ে পুলিশ প্রহরায় তাদেরকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আহতদের পরিচয় পাওয়া না গেলেও নিহতরা সবাই পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন বলে হাইওয়ে পুলিশ সুত্রে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে শেরপুর থানার ওসি খান মোঃ এরফান জানান, পুলিশ বহনকৃত ট্রাকের সাথে সার বোঝাই ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে ৭ নিহত হওয়ায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে। এই ঘটনায় রোববার সকাল সাড়ে ৮টায় বগুড়ার হাইওয়ে পুলিশ সুপার ইসরাইল হাওলাদার ও সোয়া ৯টায় বগুড়া জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন ঘটনা স্থল পুরদর্শন করেন।

oo2এ সময় হাইওয়ে পুলিশ সুপার ইসরাইল হাওলাদার সাংবাদিকদের জানান, এই ঘটনায় দুটি ট্রাকের ড্রাইভারদের অসতর্ক থাকার কারনেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। আমরা তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেব। অপর দিকে বগুড়া জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে আহত নিহতরা কি অবস্থায় আছে দায়িত্বরত পুলিশদের সাথে কথা বলে কোন মন্তব্য না করে শেরপুরের দিকে চলে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.