সিলেটের গোলাপগঞ্জে সমাবেশে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ

0000গোলাপগঞ্জ (সিলেট) থেকে আজিজ খাঁন: বাংলাদেশের সব চেয়ে বৃহৎ রাজনৈতিক সংগঠন আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পদটি আমার জন্য সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা আমার মত একজন সাধারণ মানুষকে যে উপহার দিয়েছেন এ জন্য আমি ঋণী। আমি মনে করি এ সফলতা দাবিদার আমার নির্বাচনী এলাকার জনগণ। আমি এমন কাজ করিনি যা আপনাদের মান সম্মানের উপর আঘাতহানে, আগামী দিন গুলো এভাবেই কাটিয়ে দিতে চাই। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী পরিষদ কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসাবে মনোনীত হওয়ার পর গোলাপগঞ্জ আওয়ামীলীগ কর্তৃক আয়োজিত বিশাল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।

বৃহস্পতিবার সিলেটের গোলাপগঞ্জ বাস টার্মিনালে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদের পরিচালনায় ও থানা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল মালিকের পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি আরো বলেন, আজ থেকে ৭ বছর পূর্বে জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জননেত্রী শেখ হাসিনা জাতির সামনে দিন বদলের যে কর্মসূচী তুলে ধরেছিলেন, তা আজ বাস্তবে পরিণত হয়েছে। আমরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ ব্যবস্থা, তথ্য প্রযুক্তি, খাদ্য উৎপাদন সহ সর্বক্ষেত্রে সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। বাংলাদেশকে কিছু দিন আগ পর্যন্ত বলা হত নি-আয়ের দেশ, আজ বিশ্ব বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে স্বীকৃতি দিচ্ছে। বাংলাদেশের দ্রুত উন্নতির বিভিন্ন বিষয়ে শেখ হাসিনার সরকার বিশ্বে আজ প্রশংসিত।

তিনি বিএনপি’সহ বিরোধী দল গুলোর সমালোচনা করে বলেন, ষড়যন্ত্র করে কোন লাভ হবে না। স্বাধীনতার পর দেশি-বিদেশী ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রাণ হারিয়েছিলেন। তার সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে চলছে, যুদ্ধাপরাধীদেরকে আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর খুনিরাও রক্ষা পায় নি, যারা দেশ ও জাতির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করবে তাদের একই পরিণতি হবে। এ সময় তিনি বিগত দিনে তার প্রচেষ্ঠায় গোলাপগঞ্জের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজের চিত্র তুলে ধরে বলেন, এ জনপদের মানুষের জন্য ৭ বছরে যা করেছি, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে তা হয়নি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেছেন, নুরুল ইসলাম নাহিদ সিলেটের রাজনীতির কর্ণধার। তাঁর নেতৃবৃত্বে সিলেটে আওয়ামীলীগকে সু-সংগঠিত করে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আমরা আগামী নির্বাচনে সিলেটের ১৯টি আসন শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চাই। নুরুল ইসলাম নাহিদের মত একজন বিচক্ষন ও জনপ্রিয় ব্যক্তিকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য করায় তিনি প্রধানমন্ত্রীর ও সংগঠনের সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আওয়ামীলীগ সব সময়ই সিলেটের সু-সংগঠিত ছিল। নুরুল ইসলাম নাহিদের নেতৃত্বে সিলেট আওয়ামীলীগের দূর্গ হিসাবে তার অবস্থান ধরে রাখবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী বলেছেন, ষাটের দশকের কঠিন সময়ে রাজনৈতিক অঙ্গনের এক উজ্জল নক্ষত্র ছিলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ। গ্রাম থেকে শহরে, শহর থেকে কেন্দ্রে তার অবস্থান আমাদেরকে গর্বিত করেছে। নুরুল ইসলাম নাহিদ আমাদের অহংকার। বার বার এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সততা ও দক্ষতার পরিচয় দিয়ে গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারবাসীর ভাবমূর্তিকে তিনি উজ্জল করেছেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান। বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম নেতা সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক, ভাদেশ্বর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ ছালিক, যুগ্ম সম্পাদক, গোলাপগঞ্জ সদর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান, চেয়ারম্যানদের পক্ষ থেকে শরীফগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান এমএ মুমিত হীরা, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি, পৌর কাউন্সিলর রুহিন খান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.