রাবি শক্ষিক রেজাউল হত্যার অভিযোগপত্র, জেএমবি পরিকল্পনায় খুন

02রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যা মামলার অভিযোগপত্র দিয়েছে পুলিশ। প্রায় ৬মাসের তদন্ত শেষে রোববার বিকেলে রাজশাহীর মহানগর মুখ্য হাকিমের আদালতে ওই অভিযোগপত্র দেয় রাজশাহী মহানগর পুলিশ।

’অভিযোগপত্রে ওই মামলায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে বিভিন্ন স্থানে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছেন ৩জন। এছাড়া চারজন রয়েছে কারাগারে। আর অন্যতম অভিযুক্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্র শরিফুল ইসলাম রয়েছে আত্মগোপনে।

পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে এসেছে, জেএমবির পরিকল্পনায় খুন হন অধ্যাপক রেজাউল করিম। আর এ হত্যাকান্ডের মুল পরিকল্পনাকারী ছিলেন অধ্যাপক রেজাউল করিমের ছাত্র শরিফুল ইসলাম। হত্যাকান্ডে সরাসরি অংশ নেয়া চার জনের মধ্যে রাজশাহী পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছে তারেক হাসান ওরফে বাইক হাসান। আর ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজানে আইন-শৃংখলা বাহিনীর অভিযানে মারা গেছে খাইরুল ইসলাম বাঁধন।

তবে শরিফুল এখনো পলাতক। তাকে ধরতে লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ। এই হত্যাকান্ডে আরেক অভিযুক্ত তারেক হাসান বগুড়ায় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা যান।
বর্তমানে কারাগারে থাকা ৪জন হলেন- বগুড়ার শিবগঞ্জের মাসকাওয়াত হাসান ওরফে আব্দুল্লাহ, নীলফামাীর মিয়াপাড়ার রহমত উল্লাহ, রাজশাহী নগরীর নারকেলবাড়িয়া এলাকার আব্দুস সাত্তার ও তার ছেলে রিপন। এরা সবাই আদালতে স্বিকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, গত ছয় মাসের তদন্তে যেসব তথ্য প্রমান পাওয়া গেছে তার ভিতিত্তে অপরাধিদের শাস্তির ব্যাপারে তারা আশাবাদি। পলাতক শরিফুলকে গ্রেফতারে পুলিশের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এনিয়ে বিচারিক কার্যক্রম ব্যহত হবেনা।

এদিকে, নিহত রেজাউল করিমের পরিবার বলছে, হত্যাকান্ডের পরিকল্পনাকারী, হত্যাকারীসহ সকল অপরাধি শাস্তি পাক। এটাই তারা দেখতে চান। নিহত রেজাউল করিমের স্ত্রী হোসনে আরা বলেন, তিনি অভিযোগপত্র দেয়ার কথা শুনেছেন। সব অরাধীর সর্বোচ্চ শাস্তি চান তিনি।

উল্লেখ্য, এবছরের ২৩ এপ্রিল সকাল সাড়ে সাতটার দিকে নগরীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাসার অদূরে সন্ত্রাসীরা নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করে অধ্যাপক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে। তার গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর বাগামারার দরগামারিড়ায়। সেখানে তার একটি গানের স্কুল আছে। প্রথম থেকেই এ হত্যাকাণ্ডে জঙ্গি সংশি¬ষ্টতার দাবি জানিয়েছে আসছিলো পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.