চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুর গ্রামের আলমঙ্গীর এর বিরুদ্ধে গণ পিটিশন

16চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জয়রাপুর চৌধুরী পাড়ার ঘরজামাই আলমঙ্গীর এর শাস্তির দাবীতে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার,দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট গণপিটিশন করেছে জয়রামপুর গ্রামবাসী। সোমবার ও মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে এই গণ পিটিশন করা হয়। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পক্ষে নির্বাহী অফিসের নাজির হামিদুর রহমান ও দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খাঁন গণ পিটিশন গ্রহন করেন।
গণ পিটিশন সুত্রে জানাযায়, জেলার দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুর চৌধুরী পাড়ার ফকির কসাই এর জামাই আলমঙ্গীর দীর্ঘ ১০-১২বছর এই এলাকায় বসবাস করে আসছে। ইতিমধ্যে সে ৫/৬টি বিবাহ করিয়া তাদের জীবন নষ্ট করিয়াছে। পরবর্তিতে সে জয়রামপুর এলাকায় আসিয়া স্থানীয় কিছু বিপথগামী ছেলেদের নিয়া একটি দল গঠন করিয়া বিভিন্ন অপকর্ম চালাইয়া আসিতেছে।

গত কয়েক বছর পূর্বে তার দলবল নিয়া জয়রামপুর গ্রামের আমজাদ ও মন্টু নামে ২জনকে খুন করে। উক্ত খুনের মামলায় পুলিশ তাকে আটক করে জেল হাজতে পাঠালে পরবর্ততে সে জামিনে মুক্তি পেয়ে আবারো বেপরোয়া হয়ে উঠে। তার বাহিনী দ্বারা এলাকায় গরুচুরি,রাহাজানি, মাদক ব্যাবসা, বিভিন্ন এলাকা থেকে দেহব্যাবসায়ী এনে যুব সমাজকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এলাকার সাধারন মানুষ তার এহেন কায্যকলাপের প্রতিবাদ করলে তার বাহিনী দিয়া মার ধর ও খুন যখম করিয়া থাকে। আলমঙ্গীরের এহেন কর্মকান্ডের কারনে এলাকা বাসীর ঘুম হারাম হইয়া পড়িয়াছে।

তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা সহ একাধিক মামলা থাকলে ও অর্থ ও অস্ত্রের দাপটে সর্ব প্রকার সমাজ ও আইন বিরোধী কর্মকান্ড চালাইয়া আসিতেছে। এলাকাবাসী চোরের সর্দার, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী আলমঙ্গীরকে দ্রুত আটক করে দৃষ্টান্ত মূলক সাস্তির জন্য আবেদন করেছে। এরপর একই দাবিতে মঙ্গলবার চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর গণপিটিশন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.