1. aknannu1964@gmail.com : AK Nannu : AK Nannu
  2. admin@asianbarta24.com : arifulweb :
  3. angelhome191@gmail.com : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  4. info@asianbarta24.com : Dev Team : Dev Team
সোমবার, ২৭ মার্চ ২০২৩, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন

বিশ্বের অর্ধেক মানবজাতি বিপদের মুখে রয়েছে: জাতিসংঘের মহাসচিব

  • আপডেট করা হয়েছে : রবিবার, ৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ৪৭ বার দেখা হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট;
বন্যা খরা, ঝড় ও দাবানলের কারণে বিশ্বের অর্ধেক মানবজাতি বিপদের মুখে রয়েছে। কোনো জাতিই আশঙ্কামুক্ত নয়। তবুও আমরা আমাদের জীবাশ্ম জ্বালানি আসক্তি থেকে সরে আসতে পারছি না। আমরা এটি খাওয়ানো চালিয়ে যাচ্ছি। “বিশ্ব মানবতা” সম্মিলিত আত্মহত্যা করছে, জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এবারের জলবায়ু সংকট নিয়ে আলোচনা করতে ৪০টি দেশ থেকে আগত মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে এসব কথা বলেছেন। তিনি সকলকে সত্যের মুখোমুখি হতে আহ্বান জানিয়ে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে যৌথ পদক্ষেপ অথবা যৌথ আত্মহত্যা, এ দুটির একটা বেছে নিতে হবে যা আমাদের হাতেই রয়েছে।

আগামী ৫ বছরের মধ্যে বৈশ্বকি উষ্ণতা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনে বিপর্যস্ত ধরিত্রীকে রক্ষার অঙ্গীকার বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার। এ ছাড়াও কপ-২৭ উদ্বোধন বার্তায় পরিবেশবাদী নেতারা উন্নত দেশগুলোকে আরও বেশি পদক্ষেপ নিতে বলছেন।

সাম্প্রতিক স্টেট অফ দ্য গ্লোবাল ক্লাইমেট রিপোর্টে রেকর্ড পরিমাণ জলবায়ু পরিবর্তনের খবর জানিয়েছে, যে কপ-২৭ শুরুর সময়ে আমাদের গ্রহ একটি দুর্দশার সংকেত পাঠাচ্ছে। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা স্পষ্টভাবে দেখাচ্ছে, বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন দ্রুত ও বিপর্যয়কর গতিতে ঘটছে এবং প্রতিটি মহাদেশের জীবন ও জীবিকা হুমকির মুখে এগোচ্ছে। গত আট বছরে বৈশ্বকি উষ্ণতা রেকর্ড পরিমান বৃদ্ধি পেয়েছে, প্রতিটি তাপপ্রবাহকে আরও তীব্র এবং প্রাণঘাতী করে তুলছে, বিশেষ করে দুর্বল জনগোষ্ঠীর জন্য এটি আরও ভয়াবহ। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা ১৯৯০-এর দশকের চেয়ে দ্বিগুণ গতিতে বাড়ছে, নিচু দ্বীপ রাষ্ট্রগুলোর জন্য এটি অস্তিত্বের হুমকি তৈরি করছে এবং উপকূলীয় অঞ্চলের কোটি কোটি মানুষকে সঙ্কটের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। হিমবাহের গলিত প্রবাহ রেকর্ড পরিমাণে নিজেই গলে যাচ্ছে এবং এতে পুরো মহাদেশের নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলছে। এমতাবস্থায় জলবায়ু জরুরি অবস্থার অবিলম্বে এবং ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি থেকে সর্বত্র মানুষ এবং সম্প্রদায়কে রক্ষা করতে হবে। এই কারণেই আমরা পাঁচ বছরের মধ্যে সর্বজনীন আগাম সতর্কীকরণ ব্যবস্থার জন্য এতে কঠোর চাপ দিচ্ছি বলে জানিয়েছেন জাদিসংঘ মহাসচিব।

বৈশ্বকি উষ্ণতা নিয়ন্ত্রণরে মাধ্যমে জলবায়ু পরর্বিতনে বির্পযস্ত ধরিত্রীকে রক্ষায় মিশররে বিলাসবহুল রিসোর্ট শহর শার্ম-আল-শেখে গতকাল রোববার থেকে শুরু হয়েছে ২৭তম জলবায়ু সম্মলেন। ১৩ দিনব্যাপী এ সম্মেলণে ১৯৮টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান বা তাদের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন।

জাতিসংঘের পরিবেশ সংস্থার সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুসারে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এখনও ২০১৫ সালের প্যারিস চুক্তির লক্ষ্য থেকে অনেক পিছিয়ে। বৈশ্বিক তাপমাত্রা ১ দশমিক ৫ সেন্টিগ্রেড মাত্রার নিচে রাখার অঙ্গীকার করেছে বিশ্ব সম্প্রদায়। তবে কার্বন নিঃসরণ কমানোর জন্য বিভিন্ন দেশের সরকারের পরিকল্পনা এখনও অপর্যাপ্ত বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তনের নির্বাহী সচিব সাইমন স্টিয়েল।

কনফারেন্স অব দ্য পার্টিসের সংক্ষিপ্ত রূপ কপ। এটি বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনসংক্রান্ত বিপর্যয় মোকাবিলায় জাতিসংঘের একটি উদ্যোগ। ১৯৯৫ সালে কপের প্রথম সম্মেলন হয়। ১৯৯৯ সালে ব্রাজিলের রিও ডি জেনেরিতে কপের জলবায়ু সম্মেলনে ‘জলবায়ু পরিবর্তন’ ইস্যুটি প্রথমবারের মতো সামনে আসে। ২০২০ সালে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে কপ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়নি। সবশেষ গত বছর স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে কপের ২৬তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

এরকম আরও বার্তা
স্বত্ব © ২০১৫-২০২২ এশিয়ান বার্তা  

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft