1. aknannu1964@gmail.com : AK Nannu : AK Nannu
  2. admin@asianbarta24.com : arifulweb :
  3. angelhome191@gmail.com : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  4. info@asianbarta24.com : Dev Team : Dev Team
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
জীবনের পরম তৃপ্তি আর ভালোবাসায় জড়িয়ে আছে সলঙ্গার প্রিয় নীড়ের তৃতীয় লিঙ্গের বাসিন্দারা রাণীশংকৈলে ২০০ ফুট পতাকা নিয়ে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের মিছিল জয়পুরহাট আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে নৃপেন্দ্রনাথ সভাপতি  ও শাহীন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত বঙ্গবন্ধুসেতু পূর্বপাড়ের বাগান থেকে অজ্ঞাত যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার মানবিক গুণাবলি বিকাশে লেখকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : লায়ন গনি মিয়া বাবুল গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলামকে বদলি নতুন পুলিশ সুপার মো. কামাল হোসেন গাইবান্ধায় বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের ১ম জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জের সাঁওতাল নারীদের ক্রীড়া ও ঐতিহ্যবাহী তীর ছোড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক উৎসব পলাশবাড়ীর অসচ্ছল বীরমুক্তিযোদ্ধাদের জন্য তৈরী হচ্ছে ১২ বীর নিবাস জাতীয়পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে গাইবান্ধায় বিক্ষোভ

সেমির স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল বাংলাদেশ, থ্রিলার ম্যাচ জয়

  • আপডেট করা হয়েছে : রবিবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২২
  • ৩৭ বার দেখা হয়েছে

জুবায়ের সাকিব : বাংলাদেশের দেয়া ১৫১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারেই ধাক্কা খায় জিম্বাবুয়ে। ওভারের তৃতীয় বলেই তাসকিন আহমেদ তুলে নেন ওয়েসলি মাধেভেরের উইকেট।

সাকিব আল হাসানের সেই ওভারে বল হালকা ঠেলে দিয়ে সিঙ্গেলের জন্য দৌড় দেন শন উইলিয়ামস। বোলিং প্রান্ত থেকে দৌড়ে গিয়ে বল ধরে সেকেন্ড বিলম্ব না করে স্ট্যাম্পে থ্রো করেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার। সেই থ্রোতেই রান আউট হন উইলিয়ামস। আর তাতেই ঘুরে যায় ম্যাচের মোড়।

ম্যাচ একেবারেই হাতে ছিল জিম্বাবুয়ের। রোডেশীয়দের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৯ বলে ১৯ রান। দলটির সামনে হাতছানি দিচ্ছিল আরও একটি জয়।

দলটির সামনে জয়ের জন্য দরকার ছিল এক বলে চার রান। শেষ বলের সে রোমাঞ্চে ৩ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ। এর মধ্য দিয়ে সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখল টাইগাররা।

ইনিংসের তৃতীয় ওভারে ফের আঘাত হানেন তাসকিন। এবার তার শিকার বনে ৭ বলে ৮ রান করে মাঠ ছাড়তে হয় অধিনায়ক ক্রেইগ এরভিনকে।

ষষ্ঠ ওভারে ব্যাক টু ব্যাক আঘাত হানেন মুস্তাফিজুর রহমান। বিপজ্জনক হয়ে ওঠার আগেই ফিজের শিকার বনে মাঠ ছাড়তে হয় মিল্টন শুম্বা ও সিকান্দার রাজাকে।

সাকিবের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে মাঠ ছাড়ার আগে শুম্বা করেন ৮ রান। আর আফিফের হাতে ধরা দিয়ে রাজা মাঠ ছাড়েন রানের খাতা খোলার আগেই। আর তাতেই ৩৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে রোডেশীয়রা।

পরে দলকে এগিয়ে নেয়ার গুরুভার কাঁধে তুলে নেন শন উইলিয়ামস ও রেগিস চাকাভা। এই দুই দায়িত্বশীল ব্যাটার শক্ত হাতে টেনে ধরেন উইকেট পতনের লাগাম। সেই সুবাদে ১০ ওভারে আর কোনো উইকেট না হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৬৫ রান তোলে জিম্বাবুয়ে।

সে সময় বিধাতা হয়তো লিখে রেখেছিলেন অন্য এক নাটক। এ কারণে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার পরও ফের একই জায়গায় ফিরতে হয় টাইগারদের।

সোহান স্টাম্পের আগে এসে বল রিসিভ করায় আম্পায়ার সেটি নো কল করেন। এর ফলে ১ বল করতে আরও একবার মাঠে নামতে হয় টাইগারদের।

জয়ের মিশনে হন্য হয়ে থাকা টাইগারদের সামনে মিশন ছিল কোনো মতে বলটি মিস করানো। আর জিম্বাবুয়ের একটি চার মারা, তবে শেষ হাসিটা হেসেছে বাংলাদেশই।

৩ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পেরেছে টাইগাররা। এ জয়ে সেমির স্বপ্ন এখনও টিকে রইল বাংলাদেশের।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

এরকম আরও বার্তা
স্বত্ব © ২০১৫-২০২২ এশিয়ান বার্তা  

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft