1. aknannu1964@gmail.com : AK Nannu : AK Nannu
  2. admin@asianbarta24.com : arifulweb :
  3. angelhome191@gmail.com : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  4. info@asianbarta24.com : Dev Team : Dev Team
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:২১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় গণ সমাবেশ নয়াপল্টনেই হবে; মির্জা ফখরুল জীবনের পরম তৃপ্তি আর ভালোবাসায় জড়িয়ে আছে সলঙ্গার প্রিয় নীড়ের তৃতীয় লিঙ্গের বাসিন্দারা রাণীশংকৈলে ২০০ ফুট পতাকা নিয়ে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের মিছিল জয়পুরহাট আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে নৃপেন্দ্রনাথ সভাপতি  ও শাহীন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত বঙ্গবন্ধুসেতু পূর্বপাড়ের বাগান থেকে অজ্ঞাত যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার মানবিক গুণাবলি বিকাশে লেখকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : লায়ন গনি মিয়া বাবুল গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলামকে বদলি নতুন পুলিশ সুপার মো. কামাল হোসেন গাইবান্ধায় বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের ১ম জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জের সাঁওতাল নারীদের ক্রীড়া ও ঐতিহ্যবাহী তীর ছোড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক উৎসব পলাশবাড়ীর অসচ্ছল বীরমুক্তিযোদ্ধাদের জন্য তৈরী হচ্ছে ১২ বীর নিবাস

খনি এলাকায় ছাই এর সাথে কালো মাটি মিশিয়ে কয়লা হিসেবে বিক্রি করছে॥

  • আপডেট করা হয়েছে : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২২
  • ৪ বার দেখা হয়েছে

মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি এলাকায় ছাই এর সাথে কালো মাটি মিশিয়ে ইট
ভাটার মালিকদের কাছে কয়লা হিসেবে বিক্রি করছে এক শ্রেণির প্রতারকরা। গত ৩ বছর
ধরে বড়পুকুরিয়া খনির কয়লা বিক্রি বন্ধ হওয়ায় ছাই এর সাথে কালো মাটি মিশিয়ে ইট
ভাটার মালিকদের কাছে কয়লা হিসেবে বিক্রি করছে এক শ্রেণির প্রতারকরা। এলাকার
কিছু অসাধু কয়লা ব্যবসায়ীরা ফুলবাড়ী ও পার্বতীপুর এলাকার অটো রাইচ মিল থেকে
ছাই ক্রয় করে এনে কয়লা খনি এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে মজুদ রেখে কয়লা খনির ভূগর্ভ
থেকে উত্তোলনকৃত পানির সাথে অ্যাস উঠে আসে ভূ-পৃষ্টের মাটিতে পলি জমার মত
হয়ে থাকে সেই কালো কাদা মাটি শুকিয়ে ডাস্ট করে ছাই এর সাথে মিশিয়ে ১০ থেকে
১২ হাজার টাকা টনে কয়লা বিক্রি করছে ইট ভাটার মালিকদের কাছে। ইট ভাটার মালিকেরা
সেই কয়লা ক্রয় করে ইট ভাটায় ব্যবহার করে চরম প্রতারনার শিকার হচ্ছে। আর এই অবৈধ্য
কয়লা ব্যবসায়ীরা আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হচ্ছে। এ বিষয়ে মিঠাপুকুর উপজেলার ইট ভাটার
মালিক কাসেম আলীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমরা প্রথমে মনে করেছিলাম
কয়লার গুড়া, কিন্তু ভাটায় পোড়ানোর পর দেখা যায় তার কোন ট্যাম্পার নাই এবং ইট
পোড়ানো যায় না। তখনই বুঝতে পারি এসব মাত্র ছাই। কয়লা খনি এলাকার ইউসুফ আলী
জানান, ১৮ থেকে ১৯ জন এই এলাকায় প্রতারণা করে ছাই কে কয়লা হিসেবে বিক্রি
করছেন। এতে ইট ভাটার মালিকেরা প্রতারিত হচ্ছে। এই প্রতারণা চলছে প্রায় ৩ বছর
ধরে। আপর দিকে প্রকৃত কয়লা ব্যবসায়ীদের মানক্ষুন্ন হচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে আইন গত
ব্যবস্থা নেওয়া একান্ত প্রয়োজন।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

এরকম আরও বার্তা
স্বত্ব © ২০১৫-২০২২ এশিয়ান বার্তা  

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft