1. aknannu1964@gmail.com : AK Nannu : AK Nannu
  2. admin@asianbarta24.com : arifulweb :
  3. angelhome191@gmail.com : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  4. info@asianbarta24.com : Dev Team : Dev Team
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
মির্জাপুরে অবৈধ ৯ টি ইটভাটাকে ১ কোটি ১৮ লাখ টাকা জরিমানা ১ ডিসেম্বর ‘মুক্তিযোদ্ধা দিবস’ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দিন : বাংলাদেশ ন্যাপ  ফুলবাড়ীতে স্কাউটস ভবন নির্মান কাজের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন পুলিশি বাধাঁয় ১৫ কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে নেতা-কর্মী পৌছালেন সমাবেশস্থলে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের প্রতি আস্থাহীনতাই খালাসী নিয়োগ পরীক্ষায় ব্যাপক অনুপস্থিতির কারণ ১০ দফা দাবিতে রাজশাহী বিভাগে পরিবহন ধর্মঘট শুরু রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে যেতে পথে পথে বাধা দুই দিন আগেই নেতাকর্মীদের জনস্রোত রাজশাহীতে শীত ‍উপেক্ষা করে খোলা মাঠে রাত কাটালো বিএনপির নেতাকর্মীরা সিরাজগঞ্জে ১৩ দিনে ১১ থানায় আ’লীগের মামলার জালে বিএনপির ১৬৭৪ নেতাকর্মী : গ্রেপ্তার-৭ পোল্যান্ডকে ২-০ গোলে হারিয়ে নকআউট পর্বে আর্জেন্টিনা

নিজ গর্ভের সন্তান ফেরত চান ইতালী প্রবাসীর স্ত্রী পারভীন

  • আপডেট করা হয়েছে : সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০২২
  • ৯ বার দেখা হয়েছে

বগুড়া প্রতিনিধিঃ
বগুড়ার গাবতলী উপজেলার নেপালতলী ইউনিয়নের শালুকগাড়ী গ্রামের বাসিন্দা ও বর্তমানে ইতালী প্রবাসী হেলাল উদ্দিন প্রামাণিকের স্ত্রী তাজমিনা আক্তার (পারভীন) তার গর্ভের সন্তান আহসান হাবিব (৯) কে ফিরে পেতে সরকার ও সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেছেন। সোমবার বগুড়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ছেলেকে ফিরে পেতে তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, ২০১৩ সালের ২৮ জুলাই বগুড়া শহরের নূরানী মোড়ে অবস্থিত (বর্তমানে নেই) আইভি ক্লিনিকে সিজারের মাধ্যমে তার জমজ সন্তান (একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান ) জন্ম গ্রহন করে।

কিন্তু জন্মের পর পরই ক্লিনিকের ডাক্তার ও নার্সদের সহযোগিতায় ছেলে সন্তানকে টাকার বিনিময়ে আনোয়ার ও চায়না নামের দুই ব্যক্তি বিক্রি করে দেয়। পরে উক্ত ব্যক্তিদের ইশ^^রপুর গ্রামে ছেলের সন্ধান পেলে তা দিতে বলি। কিন্তু তালবাহানা করে ফিরে দেয়নি। এ ঘটনায় স্থানীয় নেপালতলী ইউপি চেয়ারম্যান অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন। এরপর আদালতে ২০১৯ সালে ৭ জনের নামে মামলা করলে আদালত আমার ও ছেলের ডিএনএ পরীক্ষার নির্দেশ দিলে সেটা করি। ওই পরীক্ষায় রেজাল্ট পজিটিভ হলেও প্রথমে আমাকে নেগেটিভ বলে ২য় বার ডিএনএ পরীক্ষা করতে বলে। কিন্তু প্রথম রিপোর্ট পজিটিভ হওয়ার কারনে ২য় টেষ্ট করতে হয়নি।

বিগত ৩ বছর আগের ডিএনএ রিপোর্ট পজিটিভ হওয়া সত্বেও আমাকে ছেলে ফেরত দেয়া হচ্ছে না। বিচারককে বিষয়টি বার বার জানালেও তিনিও এ বিষয়ে কোন আদেশ দিচ্ছেন না। আমি ন্যায় বিচার চাই। তিনি এ ব্যাপারে সরকারের উর্ধ্বতন মহলের সহযোগিতা চান। সংবাদ সম্মেলনে জমজ বোন তাসমিয়া আক্তার (৯) সহ তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

এরকম আরও বার্তা
স্বত্ব © ২০১৫-২০২২ এশিয়ান বার্তা  

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft