1. aknannu1964@gmail.com : AK Nannu : AK Nannu
  2. admin@asianbarta24.com : arifulweb :
  3. angelhome191@gmail.com : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  4. info@asianbarta24.com : Dev Team : Dev Team
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের বিভিন্ন কর্মসূচি পালন রাজধানীর চকবাজারে পলিথিন কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রণে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নাটোরের কলেজ শিক্ষিকার মৃত্যুর নেপথ্যে উদঘাটন যারা আন্দোলন করছে তাদের কাউকে যেন গ্রেফতার করা না হয়: প্রধানমন্ত্রী কলেজছাত্রকে বিয়ে করা নাটোরের সেই শিক্ষিকার মরদেহ উদ্ধার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প ও ঔষধ বিতরণ গোপালগঞ্জে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ৭টি উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শণ করেছেন এলজিইডি’র প্রধান প্রকৌশলী নওগাঁর মহাদেবপুরে প্রাইভেট কার খাদে পড়ে স্বামী ও অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী নিহত নলডাঙ্গায় মোটরসাইকেল ও সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ২

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে জমি অধিগ্রহণ না করে ব্রিজ নির্মাণ; ৯ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

  • আপডেট করা হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টারঃ

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার ৩নং ভাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের জোকনালা গ্রামে জমি অধিগ্রহণ না করে এলজিইডি ব্রিজের কাজ শুরু করায় এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছে ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিক। আদালত মামলা গ্রহণ করে ইতিমধ্যেই ৯ জনকে নোটিশ প্রদান করেছে। আর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার জন্য ৫ জনকে ১৫ দিনের মধ্যে বিজ্ঞ আদালতে হাজির হয়ে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

২০২০ সালে দুই বছর মেয়াদের প্রকল্প নিয়ে বেলকুচির জোকনালায় ব্রীজের কাজ শুরু করে বেলকুচি উপজেলা এলজিইডি। প্রকল্পের শুরুতেই একজন জমির মালিক সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে তার জমির অধিগ্রহণ না করে ব্রীজের কাজ চলছে এমন অভিযোগ নিয়ে ঘুরলেও কোনো পাত্তা দেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সবশেষ বাধ্য হয়ে চলতি (জুলাই) মাসে আদালতে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী ও বেলকুচি উপজেলার প্রকৌশলী সহ ৯ জনকে বিবাদী করে মামলা দায়ের করে। উল্লেখ্য এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী, অতিরিক্ত নির্বাহী প্রকৌশলী (রাজশাহী বিভাগ), নির্বাহী প্রকৌশলী (এলজিইডি, সিরাজগঞ্জ), উপজেলা প্রকৌশলী (বেলকুচি), প্রকল্প ঠিকাদার জহুরুল ইসলাম, ডেপুটি কমিশনার (সিরাজগঞ্জ), ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা (জেলা প্রশাসকের কার্যালয়), উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (বেলকুচি), সহকারী কমিশনার (ভূমি), বেলকুচি মোট ৯ জনকে বিবাদী হিসেবে অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।মামলার বাদী ক্ষতিগ্রস্থ ভূমির মালিক ভজন কুমার সরকার জানান, পৈত্রিক সম্পত্তির অংশ হিসেবে জোকনালায় ২৮ শতাংশ জমি পান ভজন কুমার সরকার। আর এ জমির আয় দিয়েই চলে সংসার আর পড়াশোনা। কিন্তু ব্রীজ তৈরির কারনে ৫ শতাংশ জমি চলে যায় ব্রীজের আওতায়। আর তাতেই নিজের পড়াশোনা আর সংসারের খরচ যোগান দেয়া নিয়ে শংকায় পড়েন ভূমি মালিক।
এদিকে স্থানীয় জমি মালিকদের অভিযোগ নিজের কেনা জমি গ্রাম্য প্রধান, বিভিন্ন সরকারি অফিসের বড় কর্তাদের অনুরোধ বা আদেশের কারনে বাধ্য হয়ে অনেক সময় দিতে হয়। আর তাতে অধিকাংশ মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হলেও সমাধান পাবার জায়গা না পেয়ে নিঃস্ব হতে বাধ্য হন।
মামলার কৌশুলী অ্যাডভোকেট নিখিল ঘোষ জানান, সরকার উন্নয়নের জন্য যে কোনো জমিই অধিগ্রহণ করতে পারে। কিন্তু এই জমিতে কোনো নিয়মই মানেনি কর্মকর্তারা। তাই বাধ্য হয়েই মামলা করেছেন বাদী।

এ বিষয়ে এলজিইডির সিরাজগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান বলেন, কাজের শুরুতে কোনো জমির মালিকই আপত্তি তোলেনি। তাই মাঝ পথে এমন জটিলতা তৈরি হয়েছে। তবে নিরসনের জন্য চেষ্টাও চলছে।

প্রসঙ্গত, বেলকুচির জোকনালার এই ব্রীজ দিয়ে ৬টি গ্রামের অন্তত ১৫ হাজার মানুষ চলাচল করবে। ক্ষতিগ্রস্থ মানুষেরা সরকারের সহায়তা পাবে এমনটাই প্রত্যাশা করছে ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয়দের।

এরকম আরও বার্তা
স্বত্ব © ২০১৫-২০২২ এশিয়ান বার্তা  

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft