1. aknannu1964@gmail.com : AK Nannu : AK Nannu
  2. admin@asianbarta24.com : arifulweb :
  3. angelhome191@gmail.com : Mahbubul Mannan : Mahbubul Mannan
  4. info@asianbarta24.com : Dev Team : Dev Team
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের বিভিন্ন কর্মসূচি পালন রাজধানীর চকবাজারে পলিথিন কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রণে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নাটোরের কলেজ শিক্ষিকার মৃত্যুর নেপথ্যে উদঘাটন যারা আন্দোলন করছে তাদের কাউকে যেন গ্রেফতার করা না হয়: প্রধানমন্ত্রী কলেজছাত্রকে বিয়ে করা নাটোরের সেই শিক্ষিকার মরদেহ উদ্ধার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প ও ঔষধ বিতরণ গোপালগঞ্জে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ৭টি উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শণ করেছেন এলজিইডি’র প্রধান প্রকৌশলী নওগাঁর মহাদেবপুরে প্রাইভেট কার খাদে পড়ে স্বামী ও অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী নিহত নলডাঙ্গায় মোটরসাইকেল ও সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ২

শৈলকুপায় কন্যা যাত্রী নিয়ে বরের বাড়িতে বিয়ে করতে গেল কনে!

  • আপডেট করা হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই, ২০২২

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি-
বরযাত্রী নিয়ে কণের বাড়িতে বিয়ে করতে যায় বর এমন প্রচলণ চলে আসছে যুগের পর যুগ। চিরাচরিত নিয়ম ভেঙে এবার যাত্রীসহ কনে বরের বাড়িতে গিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছেন। ব্যতিক্রমী এ ঘটনা ঘটেছে ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার মনোহরপুর গ্রামে।

বুধবার দুপুরে বিয়ের কনে যাত্রীদের নিয়ে স্বয়ং বরের বাড়িতে হাজির হয়ে বসেন বিয়ের আসনে। কনে শৈলকুপা উপজেলা শহরের অফিসপাড়ার আব্দুল কাদেরের মেয়ে ইতি সেলিনা ও বর একই উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের শামসুদ্দিন লস্করের ছেলে ঢাকার বেসরকারি টেলিভিশনের সংবাদকর্মী এম এ মালিক।

দুপুরে মনোহরপুর গ্রামের বরের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, সুসজ্জিত মাইক্রোবাস ও মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে কনে আসেন বরের বাড়ি। প্রথানুযায়ী ফুল আর মিষ্টি মুখ করিয়ে কণেকে বরণ করে নেয় বরপক্ষের মুরব্বীরা। এরপর কনেকে গাড়ি থেকে নামিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। বসানো হয় নির্ধারিত স্থানেও। অপরদিকে বরকেও বসানো হয় স্থানে। সেখানেই ধর্মীয় বিধান মত বিয়ে হয় তাদের। বিয়ের পর বরের বাড়িতেই রয়ে যায় কনে। বুধবার এমনই এক বিয়ে অনুষ্ঠিত হয় শৈলকুপা উপজেলার মনোহরপুর গ্রামে।

প্রচলিত নিয়ম ভেঙ্গে বিয়ে করবেন দু’জনের এমন সিন্ধান্ত মেনে নেয় উভয় পক্ষের অভিভাবকরা। এমন সিন্ধান্তেই তাদের এই ব্যতিক্রমী বিয়ে।

বিয়ে শেষে কনে ইতি সেলিনা বলেন, পুরুষ শাসিত সমাজের রীতি ভেঙ্গে কন্যাযাত্রী নিয়ে বরের বাড়িতে এসে বিয়ে করেছেন। পুরুষ শাষিত সমাজে নারীদের প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হতে হয়। আমি আমার এই বিয়ে দিয়ে ওসব নির্যাতনের প্রতিবাদ জানিয়েছি।

বর এম এ মালিক বলেন, আমি নারি পুরুষে সম অধিকারে বিশ^াসী। আমাদের পরিবারের দু’পক্ষের সম্মতিতে কনে আমার বাড়িতে এসেছে। বিয়ে করেছি আমরা। আমি মনে করি এতে কিছু হলেও নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা হয়েছে।

৫ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে হয় ইতি সেলিনা, এম এ মালিকের। এই বিয়েতে কনে যাত্রী ছিল ৩০ জন।

এরকম আরও বার্তা
স্বত্ব © ২০১৫-২০২২ এশিয়ান বার্তা  

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft